২০২১ এডি সায়েন্টিস্ট র‌্যাংকিংয়ে বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিজস্ব প্রতিবেদক :
২০২১ সালের বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীদের তালিকায় স্থান পেয়েছেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য ও ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক। রবিবার(১০ অক্টোবর)এডি সায়েন্টিফিক ইনডেক্স নামের আন্তর্জাতিক সংস্থা সারা বিশ্বের ১৩ হাজার ৫৩১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাত লক্ষাধিক বিজ্ঞানীর সাইটেশন এবং অন্যান্য ইনডেক্সের ভিত্তিতে এ তালিকা প্রকাশ করে।

 

তালিকা করার ক্ষেত্রে বিশ্বের ৭,০৮,৪৮০, এশিয়ার ১,৫৩,২৬২, বাংলাদেশের ১,৭৯১ বিজ্ঞানীর সংশ্লিষ্ট বিষয়ে গত পাঁচ বছরের সাইটেশন আমলে নেওয়া হয়। এর মধ্যে প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী এবং চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিষয়ের সকল বিজ্ঞানীদের মধ্যে ১ম স্থান স্থান অর্জন করেন। এছাড়াও তিনি বাংলাদেশের ফার্মেসী বিষয়ের বিজ্ঞানীদের মধ্যে ২য় ও বাংলাদেশের চিকিৎসা ও স্বাস্থ্যবিজ্ঞান বিষয়ের বিজ্ঞানীদের মধ্যে ৮ম স্থান অর্জন করেন। পাশাপাশি তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিজ্ঞানীদের মধ্যে ৯ম ও বাংলাদেশের সকল বিজ্ঞানীদের মধ্যে ৫৩ তম স্থান অধিকার করেন। বর্তমানে তার প্রকাশনার সংখ্যা ১৩৯ টি।

 

উপাচার্য(ভারপ্রাপ্ত) প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিককে অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানিয়েছেন বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের প্রধান, কো-অর্ডিনেটর, শিক্ষক ও কর্মকর্তারা।

 

উপাচার্য তাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং বলেন, এ অর্জন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে গবেষণায় অনুপ্রেরণা জোগাবে এবং বিশ্ববিদ্যালয়কে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নেবে। বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়কে বিশ্বমানে উন্নীত এবং আন্তর্জাতিক পরিসরে মর্যাদাপূর্ণ অবস্থান তৈরিতে তিনি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, গবেষক ও শিক্ষার্থীদের গবেষণার মাধ্যমে দেশের কল্যাণে দিকনির্দেশনা প্রদান ও নতুন নতুন উদ্ভাবনার আহ্বান জানান।

 

সম্প্রতি প্রফেসর ড. আশিক মোসাদ্দিক-এর করোনা প্রতিরোধে প্রাকৃতিক খাবার সম্পর্কিত রিভিউ আর্টিকেল সকলের মধ্যে সমাদৃত হয়েছে। গুগল স্কলার এ তার এখ পর্যন্ত সাইটেশনে সংখ্যা ৩২৬২ এবং এইচ- ইনডেক্স ৩১।

 

উল্লেখ্য, ২০১১ সালে তিনি উন্নয়নশীল দেশ ও বাংলাদেশ বিজ্ঞান একাডেমি থেকে গবেষণায় অবদানের জন্য তরুণ বিজ্ঞানী গোল্ড মেডেল অর্জন করেন। ন্যাচারাল প্রডাক্ট ও ন্যানো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ হিসেবে ইতোমধ্যেই তার ১৩৫ টি প্রবন্ধ আন্তজার্তিক জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। এলসিডার সায়েন্স ও একাডেমিক প্রেস তার ৩টি বই প্রকাশ করেছে।

বাংলার কথা/১১ অক্টোবর/২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn