হাতীবান্ধায় কাঁচামাল ব্যবসায়ীর দোকানঘর ভাঙচুর

লালমনিরহাট প্রতিনিধি o

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধা উপজেলায় চলাচলের জন্য রাস্তা দিতে বলায় বাবুল(৫৫) নামে এক কাঁচামাল ব্যবসায়ীর আধা পাকা দোকান ঘরে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে প্রভাবশালী কাঁচামাল ব্যবসায়ী জয়নাল(৪৫) গংদের বিরুদ্ধে। এ সময় দোকানে রাখা আলু, মরিচ, পিয়াচ, রসুন ও আদাসহ প্রায় দুই লক্ষ টাকার মালামাল নষ্ট করে ফেলে হামলাকারীরা।

রবিবার (১১ অক্টোবর) রাত ১২টার দিকে ক্ষতিগ্রস্ত বাবলু মিয়া বাদী হয়ে জয়নালকে প্রধান আসামী করে আরও ৬ জনের নামে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এর আগে রবিবার রাত ৯টার দিকে উপজেলার হাট খোলায় হামলার ঘটনাটি ঘটে।

প্রধান অভিযুক্ত জয়নাল উপজেলার দক্ষিন সিন্দুর্না গ্রামের মৃত. মংলুর ছেলে। এছাড়া জয়নালের ছেলে, ভতিজা ও ভাইও রয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত কাচামাল ব্যবসায়ী জয়নাল উপজেলার পূর্ব সিন্দুর্নার নেছার উদ্দিনের ছেলে।

জানা গেছে, দীর্ঘ দিন ধরে হাট খোলায় কাচামালের খুচরা ও পাইকারী ব্যবসা করে আসছেন ভুক্তভোগি বাবলু। তার পাশেই ভ্রাম্যমান দোকান বসিয়ে কাচামালের ব্যবসা করতো অভিযুক্ত জয়নাল। এরই মাঝে হাটে আগত মানুষদের চলাচলের সুবিধার্থে বাবলু জয়নালকে তার দোকান একটু সরিয়ে নিতে বলে। তবে জয়নাল দোকানতো সরাননি, উল্টো বাবলুকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিতে থাকে। এমতাবস্তায় প্রতিদিনের ন্যায় বাবলু দোকান বন্ধ করিয়া বাড়িতে গেলে। অভিযুক্তরা দল বেধে লোহার রড, বাশের লাঠি, হাতুরি নিয়ে হামলা চালিয়ে দোকান ঘর ভাঙচুর করে। এছাড়া প্রায় ২ লক্ষ টাকার মালামাল নষ্ট করে চলে যায়।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত জয়নালের মোবাইলে কল দেয়া হলে তার মেয়ে ফোনটি রিসিভ করে বলেন, বাবা বাড়িতে নেই, বাইরে আছেন।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগি বাবলু জানান,‘ আমি গরীব মানুষ কষ্ট করে দোকানটি ঠিক করেছিলাম। আর সেই দোকানে হামলা চালিয়ে ভেঙ্গে দিলো। কি দোষ আমার? চলাচলের সুবিধার্থে একটু তার ভ্রাম্যমান দোকানটি সরাতে বলেছিলাম। এতে বলে ঢুকরে কেঁদে ফেলেন ভুক্তভোগি বাবলু।

এ বিষয়ে হাতীবান্ধা থানার ওসি বলেন, খোজ খবর নিয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

বাংলার কথা/রবিউল ইসলাম রবি/অক্টোবর ১২, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: