স্ময়কর “ডিফেন্স করোনা” অ্যাপের উদ্ভাবন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিউজ ডেস্ক :
পটুয়াখালী সরকারী জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের দশম শ্রেনীর শিক্ষার্থী সিয়াম রহমান উদ্ভাবন করেছেন “ডিফেন্স করোনা” অ্যাপ।

পটুয়াখালী ইয়ুথ ফোরাম সংগঠনের ব্যবস্থাপনায় ও পটুয়াখালী সরকারী জুবিলী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহযোগীতায় পটুয়াখালী জেলা প্রশাসনের ৪২তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহে প্রোটোটাইপ প্রজেক্টটি উপস্থাপন করে পটুয়াখালী জেলা পর্যায়ে ৩য় স্থান অধিকারও করেছেন তিনি।

 

পরে ততকালীন জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী সিয়ামকে অ্যাপের কার্যক্রম চালিয়ে নিয়ে যেতে উৎসাহ দিলেও টাকার অভাবে পুর্ণাঙ্গ অ্যাপে রুপান্তর করতে পারেনি উক্ত শিক্ষার্থী। বর্তমানে অ্যাপের ফিচারগুলো সক্রিয় ভাবে কাজ করছে এবং সয়ংসম্পূর্ন হয়েছে।

 

ইয়ুথ ফোরামের সভাপতি জহিরুল ইসলাম বলেন, স্মার্টফোন ব্যবহারকারীকে কাজে লাগিয়ে মোবাইলে “ডিফেন্স করোনা” অ্যাপের মাধ্যমে স্বয়ংক্রিয়ভাবে কোভিড-১৯ এর লক্ষণগুলি যাচাই করে সংক্রমনের ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিকে চিহ্নিত করে সু-চিকিৎসার ব্যবস্থা ও সুস্থ ব্যক্তিদের সংক্রমণের হাত থেকে নিরাপদে রাখার ব্যবস্থা করা সম্ভব হচ্ছে।

 

অ্যাপের উদ্ভাবক সিয়াম রহমান জানায়, ডিফেন্স করোনা অ্যাপটি অফলাইনে ব্যবহারকারীর সার্বক্ষণিক হাঁচি-কাশির সংখ্যা ও মাত্রা, জনসমাগমে গমনের সংখ্যা, জনসমাগমে গমনকালে সতর্কবার্তা প্রদান ও মাস্ক পরিধান করেছিলো কিনা এবং চোখের রং নিরীক্ষা করে হিসেব করে রাখবে। পরবর্তীতে এই সকল বিষয় সমূহের উপর ভিত্তি করে অ্যাপটির ব্যবহারকারী করোনা সংক্রমণের ঝুঁকিতে আছে কিনা তা প্রতি ৭ দিন পর পর একটি ফলাফল প্রদান করবে। যদি ব্যবহারকারীকে প্রেরিত ফলাফল ঝুঁকির সংকেত হয়, তাহলে তাকে করোনা টেস্ট করার জন্য নিকটস্থ করোনা টেস্ট ল্যাবে যাওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হবে।

 

ব্যবহারকারী কোনো কারণে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে করোনা টেস্ট ল্যাবে না গেলে সেবাকেন্দ্র কর্তৃপক্ষ এডমিন প্যানেলের সাহায্যে তার সরাসরি অবস্থান পর্যবেক্ষণ করে তাকে করোনা টেস্ট করাতে বাধ্য করতে সক্ষম হবেন এবং টেস্ট ল্যাবে পরীক্ষিত ফলাফল এডমিন প্যানেলের মাধ্যমে ব্যবহারকারীর প্রোফাইলে প্রদান করতে পারবে এবং ফলাফল অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণে সক্ষম হবেন।

 

এছাড়াও এই অ্যাপ এর মাধ্যমে ব্যবহারকারী তার নিকটস্থ সেবাকেন্দ্রের যোগাযোগের তথ্য, বেড সংখ্যা, খালি বেড সংখ্যা, নিকটস্থ স্বেচ্ছাসেবকদের তথ্য, করোনা ও ভ্যাক্সিন আপডেট, করোনা সম্পর্কিত গুজব, প্লাজমা ব্লাড সংগ্রহ, লকডাউন এলাকা, রেড জোন এলাকা, লাইভে চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ, স্বয়ংক্রিয় ঔষধ অনুস্মারক, করোনায় প্রাণ হারানো স্বরণীয়গণ, করোনা চিকিৎসক ও কোভিড সম্পর্কিত অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে তথ্য জানতে পারবে

 

পটুয়াখালী সিভিল সার্জন ডাঃ জাহাঙ্গির আলম বলেন, শিক্ষার্থী সিয়াম রহমানের উদ্ভাবিত “ডিফেন্স করোনা” অ্যাপটি দেখেছি। এটা বিজ্ঞান সম্মত, অনেক ফিচার যুক্ত এবং তথ্য বহুল স্বয়ংক্রিয়ভাবে কাজ করবে। এটা যথাযথ কর্তৃপক্ষ অনুমোদন দিলে সাধারণ মানুষ উপকৃত হবে। বর্তমানে সিয়ামের আর্থিক পৃষ্টপোষকতার পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও বিভাগের সহযোগিতা প্রয়োজন।

বাংলার কথা/১৫জুলাই/২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn