আজ- শুক্রবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

শীতের রাতে ছিন্নমূল মানুষ পেল ইউএনও’র উষ্ণ পরশ

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

তানোর (রাজশাহী) প্রতিনিধি ০
শীতে কাবু রাজশাহীর তানোর উপজেলার ছিন্নমূল মানুষ। রবিবার (২০ ডিসেম্বর) দিনগত রাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে তাদের গায়ে গরম কাপড় পরিয়ে দিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) সুশান্ত কুমার মাহাতো। প্রকৃত দুস্থ ও ছিন্নমূল মানুষগুলো যেন শীতবস্ত্র পান, সেজন্যই রাতে ঘুরে ঘুরে এগুলো বিতরণ করেন ইউএনও।

রবিবার রাতে প্রচন্ড শীতের রাতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার দুস্থ, অসহায়, বয়ষ্ক, প্রতিবন্ধী, এতিম, ছিন্নমূল ও শীতার্ত মানুষের মাঝে কম্বল বিতরণ করা হয়।

কয়েকদিনের প্রচন্ড শীতে ছিন্নমূল মানুষের যখন জবুথবু, ঠিক সেই সময়ে পৌরসদর সহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে ঘুরে তাদের হাতে কম্বল তুলে দেন ইউএনও।

উপজেলার পথে-ঘাটে ঘুমন্ত বা শীতে কাঁপা বৃদ্ধ-বৃদ্ধাসহ সব বয়সীদের গায়ে গরম কাপড় পরিয়ে দেন তিনি। শীতের রাতে ইউএনও’র এ গরম কাপড়ের পরশ পেয়ে খুশি হন অসহায়রা। কেউ কেউ তার জন্য তাৎক্ষণিক দোয়াও করেন।

এ সময় ইউএনও’র সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) স্বীকৃতি প্রামাণিক ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা তারিকুল ইসলাম।

তানোর পৌর সদরের বাসিন্দা ও পত্রিকা বিক্রেতা আব্দুল মান্নান জানান, মানুষের যে কোনো বিপদ আপদে তার কাছে ছুটে যান ইউএনও। তার দ্বারা আমিও উপকৃত হয়েছি।

তানোর পৌরশহরের অর্কিড স্কুল এন্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ এরফান আলী জানান, ইউএনও সুশান্ত কুমার নিজে স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি নিয়েও মানুষের পাশে দাঁড়ান। সেটি আমরা এ করোনা সংকটকালে দেখেছি অনেকবার। রুটিন ওয়ার্কের বাইরেও তিনি অনেক কাজ করে সাধারণ মানুষের মন জয় করেছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুশান্ত কুমার মাহাতো এই প্রতিবেদককে বলেন, সরকারের শীতবস্ত্র বিতরণের অংশ হিসেবে এ কাজগুলো করেছি। আমি দায়িত্ব পালন করেছি মাত্র। একদম প্রান্তিক মানুষের গায়ে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র তুলে দেওয়ার জন্য শীতের রাতে পৌরশহরের ফুটপাতসহ ইউনিয়নের গ্রাম-গ্রঞ্জে গিয়েছি। ভবঘুরে, বৃদ্ধ-বৃদ্ধা বা মানসিক রোগীদের খুঁজে বের করে তাদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করছি। এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

বাংলার কথা/মিজানুর রহমান/ডিসেম্বর ২১, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn