আজ- শুক্রবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

লালমনিরহাটে অবৈধ ও ঝুঁকি নিয়ে চলছে গ্যাস সিলিন্ডার ব্যবসা

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp


মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট o

অবৈধভাবে পেট্রল-ডিজেল, মনোহারী, ভূসিমাল, ফ্লেক্সিলোড ও সারসহ বিভিন্ন দোকানে চলছে গ্যাস সিলিন্ডারের ব্যবসা। এ চিত্র লালমনিরহাট জেলার ৫টি (লালমনিরহাট সদর, আদিতমারী, কালীগঞ্জ, হাতীবান্ধা, পাটগ্রাম) উপজেলার ৪৫টি ইউনিয়ন ও ২টি (লালমনিরহাট, পাটগ্রাম) পৌরসভায়।

লালমনিরহাট জেলা শহরের বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে মোড়ে প্রকাশ্যে চলছে ভয়ঙ্কর এ দোকানগুলোর সিলিন্ডার গ্যাসের জমজমাট কেনাবেচা। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতাই এর জন্য দায়ী বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করেছেন। এদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার দাবি স্থানীয়দের।

খোঁজ নিয়ে দেখা যায়, খাবার হোটেল এন্ড রেষ্টুরেন্ট ও বাসা-বাড়িতে গ্যাস এখন ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হলেও মানুষ জানে না সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবহারের নিয়মনীতি। দৈনন্দিন জীবনে জ্বালানী হিসেবে ব্যবহৃত হচ্ছে সিলিন্ডার গ্যাস।

এছাড়াও বিভিন্ন হাট-বাজারে যত্রতত্র গড়ে উঠেছে সিলিন্ডার গ্যাসের সঙ্গে পেট্রোল ও ডিজেল বিক্রির দোকান। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী জ্বালানি কাজে ব্যবহার্য সিলিন্ডার গ্যাস বিক্রিতে ট্রেড লাইসেন্স ছাড়াও বিস্ফোরক অধিদফতরের লাইসেন্স ও অগ্নিনির্বাপণ কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্র নেওয়ার বাধ্যবাধকতা আছে। কিন্তু এখানে নিয়মনীতির তোয়াক্কা করছে না কেউ। নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা ও লাইসেন্স ছাড়াই এসব এলাকায় ঝুঁকি নিয়ে চলছে সিলিন্ডার গ্যাস ব্যবসা।

অবশ্য এ ব্যাপারে জেলা ও উপজেলা প্রশাসন এবং ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের পক্ষ থেকে মাইকিং করে সচেতনতা সৃষ্টিতে তেমন কোন কর্মসূচি চোখে পড়েনি। স্থানীয়দের অভিযোগ, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের তদারকির অভাব ও উদাসীনতার জন্যই এসব দোকান গড়ে উঠেছে। দ্রুত এদের নিয়মের আওতায় আনার দাবি করেন তারা।

বাংলার কথা/ সেপ্টেম্বর ১৩, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn