হড়গ্রাম কাঁচা বাজার প্রতিষ্ঠার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল


নিজস্ব প্রতিবেদক o

জায়গা নির্ধারিত আছে। রাজশাহী সিটি করপোরেশন (রাসিক) প্রকল্পও গ্রহণ করেছে। কিন্তু একটি মহল কাঁচাবাজার প্রতিষ্ঠার বিরোধীতা করছে। এর ফলে ব্যবসায়ীরা ঝুঁকি নিয়ে রাস্তার ওপর ব্যবসা করছেন; এ সমস্যা সমাধানে স্থায়ী বাজার নির্মাণের দাবিতে আজ শনিবার (৩ অক্টোবর) বিকালে নগরীর হড়গ্রাম কাঁচাবাজারের ব্যবসায়ীরা বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ কর্মসূচির আয়োজন করে।

দ্রুত স্থায়ী বাজার নির্মাণের দাবি জানিয়ে তারা বলেন, কাঁচাবাজার প্রতিষ্ঠার জন্য সাড়ে ছয় বিঘা জায়গা নির্ধারিত আছে। কিন্তু একটি মহল সেখানে বাজার নির্মাণ করতে বিরোধীতা করছে।

নগরীর কোর্টস্টেশন থেকে হড়গ্রাম বাজার পর্যন্ত রাস্তাটি আগে অনেক সরু ছিল। সেই সময় থেকেই রাস্তার দুই পাশ দখলে নিয়ে কাঁচাবাজার বসে। সাম্প্রতিককালে রাস্তাটির লেন বিভক্ত করে চওড়া করা হয়েছে। কিন্তু এখনও ব্যবসায়ীরা রাস্তার দুইপাশে। তাই ব্যবসায়ীদের রাস্তা থেকে সরিয়ে পুনর্বাসনের জন্য নন্দীপুকুর এলাকায় স্থায়ী কাঁচাবাজার নির্মাণের উদ্যোগ নিয়েছে রাসিক।

কিন্তু এলাকার একটি মহল এর বিরোধিতা করছে কারণ কাঁচাবাজার নির্মাণ করতে হলে তাদের জমি অধিগ্রহণ করা হবে। এতে তারা ক্ষতিগ্রস্ত হবেন। কিন্তু ব্যবসায়ীরা বলছেন ভিন্ন কথা।

আজ শনিবার বিক্ষোভ মিছিল শেষে সমাবেশে ব্যবসায়ীরা বলেন, পাকিস্তান আমল থেকেই বাজারের জন্য সাড়ে ছয় বিঘা জমি আছে। সেখানেই বাজার হবে।

স্থায়ী কাঁচাজার প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়ে ব্যবসায়ীরা বলেন, রাস্তার ওপর তারা ঝুঁকি নিয়ে ব্যবসা করেন। গাড়ি এসে ধাক্কা দেয়। আবার রাস্তা দখলের জন্য তাদের গালাগাল শুনতে হয়। রাস্তা দখলের জন্য ভ্রাম্যমাণ আদালত এসে মাঝে মাঝেই জরিমানা করেন। তারপরও জীবিকার তাগিদে তারা রোদে পুড়ে, বৃষ্টিতে ভিজে ব্যবসা করেন। এখন তারা নির্ধারিত স্থানেই দ্রুত বাজার চান।

বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, বছরের পর বছর তাদের স্থায়ী বাজারে পুনর্বাসন করার আশ্বাস দেয়া হলেও প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন হয়নি। এখন শহরের পশ্চিমাঞ্চলে উন্নয়নের জোয়ার এসেছে। সিটি মেয়র এএইচএম খায়রুজ্জামান লিটন ও সদর আসনের সংসদ সদস্য ফজলে হোসেন বাদশা স্থায়ী কাঁচাবাজার নির্মাণের জন্যও একনেকে প্রকল্প পাস করিয়ে এনেছেন। কিন্তু চাঁদাবাজদের বিরোধীতার কারণে এই বাজার প্রতিষ্ঠা বন্ধ হয়ে যেতে পারে না। তারা দ্রুত এই বাজার প্রতিষ্ঠার দাবি জানান।

ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে বক্তব্য রাখেন রাজপাড়া থানা ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি রুহুল আমিন।সংগঠনের উপদেষ্টা মনির উদ্দিন পান্নার, পরিচালনায়, সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, হড়গ্রাম কাঁচাবাজার বহুমখি ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক খোরশেদ আলম খোকন, উপদেষ্টা মোশাররফ হোসেন। হড়গ্রাম নিউমার্কেট ব্যবাসায়ী সমিতির,সাধারণ সম্পাদক শেখ জাকির হোসেন, ফুটপাত ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি কাউসার আলী, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, হড়গ্রাম কাঁচাবাজার সমিতির সভাপতি বাদশা আলম প্রমূখ।

বাংলার কথা/ অক্টোবর ০৩, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: