সোমবার , ১৬ জানুয়ারি ২০২৩ | ২৫শে মাঘ, ১৪২৯
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খুলনা বিভাগ
  4. খেলাধুলা
  5. চট্টগ্রাম বিভাগ
  6. জাতীয়
  7. ঢাকা বিভাগ
  8. প্রচ্ছদ
  9. ফিচার
  10. বরিশাল বিভাগ
  11. বিনোদন
  12. মতামত
  13. ময়মনসিংহ বিভাগ
  14. রংপুর বিভাগ
  15. রাজনীতি

রাজশাহীতে রেল মেডিকেলে দুদকের ঝটিকা অভিযান, নথিপত্র জব্দ

প্রতিবেদক
BanglarKotha-বাংলারকথা
জানুয়ারি ১৬, ২০২৩ ২:১৮ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিনিধি :

বাংলাদেশ রেলওয়ে (পশ্চিম) রাজশাহীর মেডিকেলে অনিয়ম দুর্নীতি’র অনুসন্ধানে ঝটিকা অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। পশ্চিমাঞ্চল রেলের হাসপাতালগুলোতে কেনাকাটায় প্রায় ৭ কোটি টাকার অনিয়ম খতিয়ে দেখছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদকের একটি টিম রোবিবার (১৫ জানুয়ারি) দুপুরে পর পশ্চিম রেলের সদরদপ্তরে এনফোর্সমেন্ট অভিযান চালিয়েছে। এ সময় বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ নথিপত্র নিয়ে গেছেন তারা। আরও অনুসন্ধানের প্রয়োজনে কিছু নথিপত্র তলব করেছে দুদক।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়,পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের হাসপাতালগুলোতে ২০১৭-২০১৮ অর্থবছরে বিভিন্ন খরচের ওপর অডিট করে মন্ত্রণালয়ের উচ্চ পর্যায়ের টিম। ২০১৯ সালের মার্চ ও এপ্রিলে এই অডিট সম্পন্ন হয়। এতে ধরা পড়ে, বিভিন্নখাতে খরচের ক্ষেত্রে সরকারী নিয়মনীতি মানা হয়নি। এই অডিটে ৭ কোটি ২০ লাখ টাকা খরচের অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। অনিয়ম খতিয়ে দেখতে রাজশাহী মহানগরীর শিরোইল এলাকায় অবস্থিত রেলওয়ে হাসপাতালে ঝটিকা অভিযান পরিচালনা করে

দুদকের এনফোর্সমেন্ট টিম। এই টিমে নেতৃত্ব দেন দুদকের রাজশাহী জেলা সমন্বিত কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আমির হোসাইন। টিমে অন্য সদস্যরা হলেন- উপ-সহকারী পরিচালক সাজ্জাদ হোসেন ও সহকারী পরিদর্শক মাজবুবুর রহমান।
এ সময় তারা বিভাগীয় মেডিকেল অফিসার ডা.এসএম মারুফুল ইসলামকে অনিয়মের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। পরে হাসপাতালের কেনাকাটা ও খরচ সংক্রন্ত বেশকিছু রেকর্ড সংগ্রহ করেন। পরে রেল ভবনে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদারের দপ্তরেও যান তারা। সেখানে নিজ দপ্তরে মহাব্যস্থাপকের কাছেও অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাওয়া হয়। তার কাছ থেকে এ সংক্রান্ত নথিপত্র তলব করেছে দুদক।

এ বিষয়ে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ে হাসপাতালের বিভাগীয় মেডিকেল অফিসার ডা. এসএম মারুফুল ইসলাম বলেন, ‘দুদকের টিম হাসপাতালে এসেছিল। তারা আমাদের কাছে নানা অনিয়মের তথ্য জানতে চেয়েছিলেন। বেশকিছু নথিপত্রও নিয়ে গেছেন। আরও রেকর্ডপত্র চেয়েছেন। কয়েকদিনের মধ্যে তা সরবরাহ করা হবে।

দুদকের ঝটিকা অভিযানের কথা স্বীকার করে পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের মহাব্যবস্থাপক অসীম কুমার তালুকদার বলেন, পুরনো কিছু কেনাকাটা ও খরচের বিষয়ে তারা জানতে চেয়েছেন। আমরা আমাদের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করেছি। লোক ডেকে সমস্ত তথ্য দিয়েছি।

সর্বশেষ - প্রচ্ছদ