রাজশাহীতে এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিজস্ব প্রতিবেদক ০
করোনা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় রাজশাহী নগরীতে এক সপ্তাহের সর্বাত্মক লকডাউন দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার (১০ জুন) বিকাল ৫টা থেকে আগামী ১৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত এই লকডাউন বহাল থাকবে। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ুন কবীর সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

 

এর আগে রাত ৯টার দিকে রাজশাহী সার্কিট হাউজে বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন বিভাগীয় কমিশনার ড. হুমায়ুন কবীর। বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন রাজশাহী রেঞ্জ পুলিশের ডিআইজি আব্দুল বাতেন, রাজশাহী মহানগর পুলিশ কমিশনার আবু কালাম সিদ্দিক , জেলা প্রশাসক আব্দুল জলিল ও অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মুহাম্মদ শরিফুল হক।

 

পরে বিভাগীয় কমিশনার সাংবাদিকদের লকডাউনের বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, রাজশাহীতে প্রথমে সন্ধ্যা ৭টা থেকে পরদিন সকাল পর্যন্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছিল। তারপর আরও দুই ঘণ্টা এগিয়ে বিকাল ৫টা থেকেই বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়। এই কয়দিন আমরা পর্যবেক্ষণ করছিলাম। কোথাও করোনার নিম্নমুখী সংক্রমণ, কোথাও উর্দ্ধমুখী। কিন্তু উর্দ্ধমুখী সংক্রমণই বেশি। তাই শুক্রবার বিকাল ৫টা থেকে ১৭ জুন মধ্যরাত পর্যন্ত রাজশাহী শহরে সর্বাত্মক লকডাউনের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

 

তিনি জানান, লকডাউন চলাকালে রাজশাহী মহানগরীতে সকল প্রকার দোকানপাট বন্ধ থাকবে। তবে ওষুধের দোকান বা অন্যান্য জরুরি সেবার দোকান খোলা যাবে। খাদ্যদ্রব্য, পণ্যবাহী ও জরুরি সেবার যানবাহন চলাচল করবে। এর বাইরে রিকশা, অটোরিকশাসহ সকল প্রকার যানবাহন ও গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। এমনকি ঢাকাগামী বাস চলাচলও বন্ধ থাকবে।

 

শুক্রবার সকালের পরিবর্তে বিকাল ৫টা থেকে লকডাউন শুরুর কারণ ব্যাখা করে বিভাগীয় কমিশনার বলেন, অনেকে রাজশাহী এসেছেন, তাঁরা চলে যাবেন। কিংবা রাজশাহীর কেউ বাইরে আছেন, তাদের রাজশাহী ফেরা প্রয়োজন, সে কারণে শুক্রবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত সময় দেওয়া হয়েছে। কারণ, লকডাউনের এই ঘোষণাটি রাতে দেওয়া হলো। অনেকে সেটা হয়ত জানতে পারবেন না। শুক্রবার ৫টার মধ্যে মানুষজন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রও কিনতে পারবেন।

 

 

বাংলার কথা/জুন ১০, ২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn