রংপুর সিটি মেয়রের কক্ষে মোটর মালিক সমিতির সভাপতির পিস্তল থেকে মিস ফায়ার

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

বাংলার ডেস্ক :
সময় তখন আনুমানিক দুপুর সাড়ে ১২টা। রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা তার কক্ষে শিক্ষার্থীদের নিয়ে একটি অনুষ্ঠান করছিলেন। এমন সময় সৌজন্য সাক্ষাতের জন্য মেয়রের কক্ষে প্রবেশ করেন রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি একেএম মোজাম্মেল হক। তিনি পকেটে হাত দিয়ে মোবাইল ফোন বের করতে গেলে পকেট থেকে তার ব্যক্তিগত পিস্তলটি মেঝেতে পড়ে গিয়ে বিকট শব্দে একটি গুলি বের হয়। গুলিতে কোনো হতাহতের ঘটনা না ঘটলেও গুলির শব্দে সবাই আতঙ্কিত হয়ে পড়েন। খবর পেয়ে ছুটে আসেন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

 

রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমশিনার (ডিবি এন্ড মিডিয়া) মো. সাজ্জাদ হোসেন জানান, ঘটনার পরপরই আমরা বিষয়টি তদন্ত করি। প্রাথমিক তদন্তে মনে হয়েছে কারও সাথে কারও শত্রুতা কিংবা রেশারেশি ছিল না। মোজাম্মেল হক পকেট থেকে মোবাইল ফোন বের করতে গিয়ে অসাবধনতাবসত পিস্তলটি মেঝেতে পড়ে যায়। এসময় একটি গুলি বেরিয়ে যায়। এটি একটি মিস ফায়ার। এই ঘটনায় মোজাম্মেল হক থানায় একটি জিডি করেছেন। বিষয়টি আরও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

 

সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা জানান, তার কক্ষে একটি বেসরকারি সংস্থা আয়োজিত ছায়া সংসদের কার্যক্রম হিসেবে প্রতীকী মেয়রের দায়িত্ব পালনের অনুষ্ঠান চলছিল। এসময় রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি একেএম মোজাম্মেল হক তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে সেখানে আসেন। কথা বলার এক পর্যায়ে মোজাম্মেল হক পকেট থেকে মোবাইল বের করতে গেলে তার লাইসেন্স করা পিস্তল হাত থেকে মেঝেতে পড়ে যায়। এতে বিকট শব্দ হয়। তবে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। মেয়র আরও বলেন, শব্দ হলেও রুমে গুলির কোনো চিহ্ন বা খোসা খুঁজে পাওয়া যায়নি।

 

রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির নবনির্বাচিত সভাপতি একেএম মোজাম্মেল হক বলেন, এঘটনায় থানায় জিডি করেছি। পকেট থেকে মোবাইল বের করতে গিয়ে পিস্তল মাটিতে পড়ে যায়। অসাবধানতাবশত আটকে থাকা একটি গুলি বের হয়ে যায়।

বাংলার কথা/৫ অক্টোবর/২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn