বৃহস্পতিবার , ১০ নভেম্বর ২০২২ | ২২শে মাঘ, ১৪২৯
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খুলনা বিভাগ
  4. খেলাধুলা
  5. চট্টগ্রাম বিভাগ
  6. জাতীয়
  7. ঢাকা বিভাগ
  8. প্রচ্ছদ
  9. ফিচার
  10. বরিশাল বিভাগ
  11. বিনোদন
  12. মতামত
  13. ময়মনসিংহ বিভাগ
  14. রংপুর বিভাগ
  15. রাজনীতি

যাত্রাপালা নিয়ে আ.লীগের দু’পক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

প্রতিবেদক
BanglarKotha-বাংলারকথা
নভেম্বর ১০, ২০২২ ৬:১২ অপরাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক :

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে যাত্রাপালা আয়োজনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দু’পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে আঘাত পান হারিস সরকার (৪৮) নামে এক ব্যক্তি। তিনি সড়কে অজ্ঞান হয়ে পড়েন। দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (৯ নভেম্বর) মধ্যরাতে উপজেলার খালিয়াচর গ্রামে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। নিহত হারিস সরকার ওই এলাকার আলমাছ সরকারের ছেলে।

স্থানীয়দের সূত্রে জানা যায়, খালিয়ারচর পশ্চিমপাড়া অহিদের বাড়িতে বুধবার রাতে যাত্রাপালার আয়োজন করে স্থানীয় মনির হোসেন, আহসানউল্লাহ, ইউসুফ ও তার সহয়োগিরা। যাত্রাপালার মাঝখানে বক্তব্য দেওয়ার সময় সাবেক চেয়ারম্যান সাইফুল ইসলাম স্বপনের নাম উচ্চারণ করলেও বর্তমান চেয়ারম্যান ফাইজুল হক ডালিমের নাম উচ্চারণ না করায় বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে পড়ে। এক পর্যায়ে ধস্তাধস্তি ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ সময় ধাক্কা খায় খোকন সরকারের ভাতিজা হারিস সরকার। পরে বাড়ি যাওয়ার পথে অজ্ঞান হয়ে সড়কে পড়ে যান হারিস সরকার। তাকে কুমিল্লা জেলা মেঘনা থানার একটি হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

খোকন সরকার বলেন, মনিরের লোকজন তার ভাতিজা হারিস সরকারকে ব্যাপকভাবে কিল-ঘুষি মারে। এতে সে আহত হয়।পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে সে মারা গেছে। তিনি ঘটনাটিকে হত্যা দাবি করে মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানান।

মনির পক্ষের লোক আহসানউল্লাহ জানান, স্থানীয় যুবকরা মিলে মঞ্চ নাটকের আয়োজন করে। সেখানে কোনো ধস্তাধস্তি বা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেনি। হারিস সরকার আগে থেকেই অসুস্থ ছিলো। নাটক দেখে বাড়ির যাওয়ার সময় সড়কে হার্টএ্যাটাকে তিনি মারা যান। কিন্তু প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে খোকন মেম্বার এ ঘটনাটিকে অন্যদিকে মোড় নেওয়ার অপচেষ্টা করছেন বলে তিনি দাবি করেন।

আড়াইহাজার থানার ওসি আজিজুল হক হাওলাদার জানান, খালিয়াচরে মঞ্চনাটকে নাম বলা না বলা নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ধস্তাধস্তির ঘটনা ঘটেছে। এদের মধ্যে এক পক্ষে লোক হারিস সরকার। সে বাড়ি যাওয়ার পথে সড়কে অজ্ঞান হয়ে পড়ে যায়। পরে হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতাল থেকে কুমিল্লা মর্গে ময়নাতদন্তের পর নিহতের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। হারিস সরকার হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে নাকি হত্যা করা হয়েছে ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে তা পরিস্কার জানা যাবে। ভিকটিমের পরিবারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে এখনও কোনো অভিযোগ দায়ের করেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সর্বশেষ - প্রচ্ছদ