বাঘার পাকুড়িয়ায় মৎস্যজীবীদের সরকারি সহায়তা প্রদান 

নিজস্ব প্রতিবেদক, বাঘা (রাজশাহী) o
গত ১৪ অক্টোবর থেকে দেশব্যাপী শুরু হয়েছে ‘মা ইলিশ’ সংরক্ষণ অভিযান। এ লক্ষ্যে বাঘার পাকুড়িয়া ইউনিয়নে ১৭৫ জন মৎস্যজীবীকে সরকারি সহায়তার অংশ হিসাবে ২০ কেজি করে চাল দেয়া হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) সকালে  পাকুড়িয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মেরাজুল ইসলাম সহকারি মৎস্য কর্মকর্তাকে সাথে করে এ চাল বিতরণ করেন।

১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ‘মা ইলিশ’ সংরক্ষণ করার নিমিত্তে সরকার প্রতিবারের মতো এবারও পদ্মায় ইলিশ ধরা সম্পূর্ণরূপে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে। এ লক্ষ্যে সরকার মৎস্যজীবীদের মাঝে সরকারি সহায়তা হিসাবে ২০ কেজি করে চাল বরাদ্দ করেছে। প্রথম দিন ১৪ অক্টোবর উপজেলার মনিগ্রাম ইউনিয়ন থেকে এ চাল বিতারণ শুরু করা হয়েছে।

উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা আমিরুল ইসলাম জানান, বাঘা উপজেলায় ৭টি ইউনিয়ন এবং ২টি পৌরসভা রয়েছে। এর মধ্যে চারটি ইউনিয়ন এবং একটি পৌরসভার আংশিক অংশ নদী তীরবর্তী এলাকায় অবস্থিত। এর মধ্যে পাকুড়িয়া ইউনিয়নে মৎস্যজীবীর সংখ্যা ১৭৫ জন, মনিগ্রামে ১৪৫ জন, গড়গড়িতে ৮০ জন, চকরাজাপুর ইউনিয়নে ৩৫০ জন এবং বাঘা পৌরসভায় ৭৫ জন। সর্বমোট মৎসজীবীর সংখ্যা ৮২৫ জন। এসব মৎস্যজীবীর মাঝে স্ব-স্ব ইউনিয়ন এবং পৌরসভা থেকে আগামি চার দিনের মধ্যে ২০ কেজি করে চাল দেয়া হবে।

বাংলার কথা/নুরুজ্জামান/অক্টোবর ১৫, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: