বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রথম নারী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগম

বাংলার কথা ডেস্ক ০ 

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেডিকেল কোর থেকে প্রথম নারী ব্রিগেডিয়ার জেনারেল হয়েছেন নাজমা বেগম। নারী ক্ষমতায়নে যা এক গুরুত্বপূর্ণ মাইলফলক অর্জন।

ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগম ইতোপূর্বে সেনাবাহিনীর ইতিহাসে ফিল্ড অ্যাম্বুলেন্স শাখার প্রথম নারী কমান্ডার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এছাড়া, তিনিই প্রথম সেনা চিকিৎসা ব্যবস্থার প্রথম সহকারী পরিচালক পদ লাভ করেন। নেতৃত্ব দিয়েছেন জাতিসংঘ ইতিহাসের প্রথম নারী কন্টিনজেন্টকে। এছাড়া, বিশ্বের ইতিহাসে নাজমা বেগমই প্রথম নারী যিনি লেভেল-২ পর্যায়ের সামরিক হাসপাতাল দুইবার পরিচালনা করেছেন।

দেশের হয়ে জাতিসংঘ মিশনে অংশ নেওয়া জ্যেষ্ঠ নারী সামরিক কর্মকর্তা হিসেবেও ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন নাজমা বেগম।

বাংলাদেশ বিমান বাহিনীতে চাকরিকালীন তিনি দু’টি (বিমানঘাঁটি জহুর এবং বেস বাশার) বেসে মেডিক্যাল স্কোয়াড্রন কমান্ড করেন। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে তিনি ফোর্স কমান্ডার, এসআরএসজি, মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রের সেনাপ্রধান এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রীর প্রশংসাপত্র লাভ করেন।

ব্রিগেডিয়ার নাজমা বেগম ২০১৬ এবং ২০১৯ সালের জন্য ‘মিলিটারি জেন্ডার অ্যাডভোকেট’ পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন।

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমা বেগমের অবদানের কথা উল্লেখ্য করে মধ্য আফ্রিকা প্রজাতন্ত্রে নিযুক্ত জাতিসংঘ মহাসচিবের বিশেষ দূত (এসআরএসজি) বলেন, ‘ইতিহাস বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল কন্টিনজেন্টের অবদানটাই শুধু স্মরণ করবে না, বরং সর্বপ্রথম নারী কমান্ডার হিসেবে তখনকার নাজমা’র জন্যও তা স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’

সূত্র:টিবিএস।

বাংলার কথা/অক্টোবর ০৯, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: