বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের শেকড় উপড়ে ফেলতে হবে: এমপি এনামুল 

শামীম রেজা, বাগমারা (রাজশাহী) o
রাজশাহী-৪ (বাগমারা) আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার এনামুল হক বলেছেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। যার জন্ম না হলে আমরা পেতাম না স্বাধীন ভূখন্ড, লাল সবুজের পতাকা। তাঁর রক্তের ঋণ কোন কিছুর বিনিময়ে শোধ করা যাবে না।

তিনি বলেন, এমন নেতাকে হারিয়ে জাতি আজ শোকাহত। হাজার বছর খুঁজলেও এমন নেতাকে আর খুঁজে পাওয়া সম্ভব না। সেই নেতার সকল কর্ম আর ইতিহাস বাঙালিদের অন্তরে লালন করতে হবে। জাতির জনক হলেন ইতিহাসের মহানায়ক। যার নেতৃত্বে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছে নিরস্ত্র জনতা। যে মানুষটি সারা জীবন দেশের জনগণের কল্যাণে কাজ করে গেছেন, তাকেই নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। কারাগারে বন্দি করে রাখা হয়েছে জীবনের গুরুত্বপূর্ণ সময়গুলোতে। কারাগারে বন্দি থাকলেও সেখান থেকেও তিনি নানাভাবে শক্তি যুগিয়েছেন বাঙালিকে।

আজ শনিবার (১৫ আগষ্ট) বাগমারা উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর কমপ্লেক্সের সালেহা ইমারত মিলনায়তনে উপজেলা আ’লীগ ও উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবসের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এনামুল হক এসব কথা বলেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করে বাংলাদেশকে পিছিয়ে দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। জাতির জনকের স্বপ্ন যাতে বাস্তবায়িত না হয়, সেটাই ছিল তাদের মূল উদ্দেশ্য। তাদের সেই চিন্তা-চেতনাকে ভেঙ্গে দিয়ে বঙ্গবন্ধুর সেই স্বপ্নকে বাস্তবে রুপদান করে চলেছেন তার সুযোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জাতি স্মরণ করছে জাতির জনকের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী। যে উদ্দেশ্যে নিয়ে বঙ্গবন্ধু দেশ স্বাধীন করেছেন, সেই উদ্দেশ্যে বাস্তবায়ন করা সকলের নৈতিক দায়িত্ব।

উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি মতিউর রহমান টুকুর সভাপতিত্বে এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ গোলাম সারওয়ার আবুলের পরিচালনায় বঙ্গবন্ধুর ইতিহাস সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অনিল কুমার সরকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফ আহম্মেদ, বাগমারা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আতাউর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. গোলাম রাব্বানী, উপজেলা কৃষি অফিসার রাজিবুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা আলী খাজা এম.এ মজিদ, উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সিরাজ উদ্দীন সুরুজ, মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক কহিনুর বানু, উপজেলা কৃষকলীগের সাধারণ সম্পাদক ও ভাইস চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান আসাদ।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ভবানীগঞ্জ পৌরসভার মেয়র আব্দুল মালেক মন্ডল, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি আহসান হাবিব, রিয়াজ উদ্দীন আহমেদ, আফতাব উদ্দীন আবুল, দপ্তর সম্পাদক ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, সহ-দপ্তর সম্পাদক নুরুল ইসলাম, সহ-প্রচার সম্পাদক ফরহাদ হোসেন মজনু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মমতাজ আক্তার বেবী, চেয়ারম্যান আব্দুল হামিদ ফৌজদার, আনোয়ার হোসেন, আজাহারুল হক, আয়েন উদ্দীন, কার্যকরী কমিটির সদস্য অধ্যক্ষ হাতেম আলী, হাচেন আলী, জেলা আ’লীগের সাবেক সদস্য জাহানারা বেগম, জেলা পরিষদ সদস্য নার্গিস বেগম, উপজেলা যুবলীগ সভাপতি আল-মামুন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শামীম মীর, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম সহ জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন আ’লীগ এবং অংগ সহযোগি সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

অনুষ্ঠান শেষে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী ও শোক দিবসের বিভিন্ন প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হয়। এতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদুল হাসান, প্রকৌশলী সানোয়ার হোসেন সহ প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে সূর্যোদয়ের সাথে সাথে উপজেলা আ’লীগের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিত রাখা এবং শোক পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে উপজেলা আ’লীগ, উপজেলা প্রশাসন, উপজেলা পরিষদ, ভবানীগঞ্জ পৌরসভা, যুবলীগ সহ বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করা হয়।

এদিকে, আলোচনা শেষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। এছাড়াও উপজেলা আ’লীগের উদ্যোগে পৌরসভার বিভিন্ন স্থানে গরীব-দুঃখী মানুষের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়।

বাংলার কথা/আগষ্ট ১৫, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: