পুলিশ পরিদর্শক তানভীরের মহৎ কাজের সাথে যুক্ত হলেন অভিনেতা সনি রহমান

মারুফ সরকার , ঢাকা থেকে  ০

নরসিংদীর মনোহরদিতে তাঁর বেড়ে ওঠা। ২০০৫ সাল থেকে কাজ করছেন ছোটপর্দায়। সম্প্রতি সনি রহমান যুক্ত হয়েছেন চলচ্চিত্রে। ‘তোলপাড়’ চলচ্চিত্র দিয়ে বড়পর্দায় অভিষেক হবে তাঁর।

সনির মা শামীমা আফ্রাদ নরসিংদীর মনোহরদীতে স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে কাজ করছেন। সম্প্রতি মা ও ছেলে মিলে তাঁদের গ্রামের ৩৫০ পরিবারের পাঁশে দাঁড়িয়েছেন। গ্রামের অসচ্ছল মানুষগুলোর বাড়ি বাড়ি পৌঁছে দিয়েছেন নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী।

সনি রহমান অভিনীত নির্মাণাধীন বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর আদর্শ নিয়ে ‘তোলপাড়’ ছবির কাহিনী। বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতি করোনা আতঙ্ক। এর জেরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ-শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, খেলাধুলা, বিনোদন, থিয়েটার, জিমসহ সব ধরনের আর্থিক বাজার বন্ধ রয়েছে। করোনা ভাইরাসের কারণে পুরো বিশ্ব অবরুদ্ধ। ক্রমেই এই ভাইরাস মহামারি আঁকারে রুপ নিচ্ছে। আর এই মহামারিতে সবাই ঘরে থাকলেও রাজপথে কাজ করে যাচ্ছেন বাংলাদেশ পুলিশ।

তাই তাদের আদর্শ ও কাজের প্রতি সম্মান জানিয়ে এ ছবির নায়ক সনি রহমান ‘তোলপাড়’ সিনেমাটি পুলিশ বাহিনীকে উৎসর্গ করলেন। বর্তমান করোনাভাইরাস মোকাবেলায় বিশ্ব আজ কঠিন সময় পার করছে। এই পরিস্থিতিতে বাজার বন্ধ থাকায় ও মানুষ কর্মহীন হওয়ায় অর্থনৈতিক ভাবেই কিছুটা সংকটে পড়েছে। বর্তমান পরিস্থিতি মোকাবেলায় সাধারণ মানুষের খাদ্য সংকট লাঘব করতে নরসিংদী জেলার মনোহরদী থানার অধিনস্ত রামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র একটি মহৎ উদ্যোগ গ্রহণ করেন।

বাজার মূল্য থেকে একদম কমে অর্থাৎ নাম মাত্র মূল্যে উক্ত থানার বিভিন্ন বাজার ঘুরে ঘুরে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সামগ্রী বিক্রি করা হচ্ছে। এই মহৎ কাজটি নিজে থেকে পরিচালনা করছেন রামপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পরিদর্শক (তদন্ত) তানভীর আহমেদ। তার এই মহৎ কাজটি দেখে অভিনেতা সনি রহমান এই মহৎ কাজটির সাথে যুক্ত হন।

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় শুরু থেকেই সনি রহমানকে বিভিন্ন সময় সামাজিক কাজ সহ গরীব অসহায়দের পাশে দাঁড়াতে দেখা যায়।

এ প্রসঙ্গে সনি রহমান জানান, মানুষ মানুষের জন্য। সুতরাং যে কোনো মুহূর্তে যে কোনো সমস্যায় প্রতিটি মানুষের নৈতিক দায়িত্ব একে অপরের পাশে দাঁড়ানো। আমি কিছু পাওয়ার জন্য নয় সামাজিক আর নৈতিক দায়িত্ব থেকে ছোট বেলা থেকে সামাজিক কাজগুলো করে আসছি। আর মহান সৃষ্টিকর্তা যতদিন বাঁচিয় রাখবে, ততদিন করে যাবো।

পরিদর্শক তানভীর আহমেদ জীবনের মায়া ত্যাগ করে ২৪ ঘন্টা মানুষের সেবায় মাঠ পর্যায়ে কাজ করছেন। তিনি তো নিজের জন্য নয়, আমাদের জন্য করছেন। তাই তার এই মহৎ কাজের সাথে আমি যুক্ত হলাম।

বাংলার কথা/মে ০৯, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email