রবিবার , ৩০ অক্টোবর ২০২২ | ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খুলনা বিভাগ
  4. খেলাধুলা
  5. চট্টগ্রাম বিভাগ
  6. জাতীয়
  7. ঢাকা বিভাগ
  8. প্রচ্ছদ
  9. ফিচার
  10. বরিশাল বিভাগ
  11. বিনোদন
  12. মতামত
  13. ময়মনসিংহ বিভাগ
  14. রংপুর বিভাগ
  15. রাজনীতি

নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে পাকিস্তানের প্রথম পেল জয়

প্রতিবেদক
BanglarKotha-বাংলারকথা
অক্টোবর ৩০, ২০২২ ২:২৬ অপরাহ্ণ

নিউজ ডেস্ক :

পাকিস্তানকে নেদারল্যান্ডস টার্গেট দিল ৯২ রানের। পাকিস্তানের জয়টা নিশ্চিতই বলা যায়।

সেই লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমেও চার উইকেট খোয়োতে হলো তাদের। ১৩.৫ ওভারেই ছয় উইকেট হাতে নিয়ে এবারের বিশ্বকাপে প্রথম জয়ের দেখা পেল পাকিস্তান।

টানা দুই ম্যাচ হারের ফলে প্রবল সমালোচনার মধ্যে ছিল পাকিস্তান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে হারের পর তো দলের সাবেক ক্রিকেটাররাও তাদের নিয়ে সমালোচনা করছিল। তাই এই ম্যাচে পাকিস্তানের উপর চাপ ছিল অনেক। সেই চাপ শুরুতেই হালকা করে দেন দলের বোলারারা। অস্ট্রেলিয়ার পার্থে পাকিস্তানের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি নেদারল্যান্ডসের ব্যাটসম্যানরা। পুরো ২০ ওভার ব্যাট হাতে লড়াই করলেও মাত্র ৯১ রানের সংগ্রহ পেয়েছে তারা।

ম্যাচে ২৬ রান তুলতেই তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পরে ডাচরা। রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়েন ডি লিড। এরপর কলিন আকারম্যান এবং স্কট অ্যাডওয়ার্ড লড়াই করার চেষ্টা করেন। ২৭ বলে ২৭ রান করে শাদাব খানের শিকার হয়ে ফিরে যান আকারম্যান। ২০ বলে ১৫ রান করা অ্যাডওয়ার্ডকে ফেরান নাসিম শাহ। এই দুই ব্যাটসম্যান ছাড়া আর কোনও ব্যাটসম্যানই দুই অঙ্কের ঘরে পৌছাতে পারেননি। ফলে ২০ ওভারে ৯ উইকেটের বিনিময়ে ৯১ রান করে নেদার‌ল্যান্ডস। এটি টি–টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ইতিহাসে পুরো ২০ ওভার ব্যাট করে কোনো দলের সর্বনিম্ন সংগ্রহ। পাকিস্তানের হয়ে তিন উইকেট শিকার করেছেন শাদাব খান। মোহাম্মদ ওয়াসিম নিয়েছেন দুই উইকেট। এছাড়া একটি করে উইকেট নিয়েছেন শাহিন আফ্রিদি, নাসিম শাহ আর হারিস রউফ।

৯২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ১৩.৫ ওভারে ৫ উইকেটে ৯৫ রান সংগ্রহ করে পাকিস্তান। ছোট লক্ষ্য তাড়া করতে নেমেও পাকিস্তানের শুরুটা সাবলীল হয়নি। দ্বিতীয় ওভারেই অধিনায়ক বাবর আজম সাজঘরে ফিরেছেন ৫ রানে রান আউট হয়ে। পরে ফখর জামান (২০) ও রিজওয়ানের জুটিতে পাকিস্তানকে আর বেগ পেতে হয়নি। মোহাম্মদ রিজওয়ান সর্বোচ্চ ৪৯ রান করেন। এছাড়া বাবর ৪, শান মাসুদ ১২ রান করে বিদায় নেন। ইফতিখার ৬ ও শাদাব খান ৪ রান করে অপরাজিত থাকেন।

সর্বশেষ - প্রচ্ছদ