আজ- শুক্রবার, ২৬শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৪ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

নিজ পৈতৃক সম্পত্তি বুঝে পেতে সংবাদ সম্মেলন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp


নিজস্ব প্রতিবেদক o
রাজশাহীতে নিজ পৈতৃক সম্পত্তি বুঝে পেতে সংবাদ সম্মেলন গতকাল মঙ্গলবার রাতে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। নগরীর কাজলা এলাকার আবু তালেব এর পক্ষে তার মেয়ে জাহেদা বেগম ও আবুল কালাম এবং আব্দুল কাদের নামে তিনজন এই সংবাদ সম্মেলন করেন।
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় মার্কেট সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, ২০০০ সাল থেকে উভয়পক্ষ অর্থাৎ পাঁচ অংশিদার যথাক্রমে সাদের আলী সবু, আবু তালেব, নাজিমুদ্দিন নাজু, আব্দুল সোবহান কাচু ও আবুল কালাম যৌথভাবে মার্কেট করেছিলেন, মার্কেট করার পুর্বে থেকে আমরা এই সমপত্তি ভোগ দখলে ছিলাম।
২০০৬ সালে সরকার মার্কেটের কিছু অংশ একোয়ার করে। একোয়ার এর পর আমরা তিন অংশীদার মার্কেট থেকে বঞ্চিত হচ্ছি। একোয়ার হওয়ার পুর্বে যে টাকা পেয়েছিলাম সে টাকা পুর্বের নির্মাণ কাজের চুক্তি অনুযায়ী আব্দুস সোবহান কাচু কে ৭,২৮০০০ (সাত লক্ষ আটাশ হাজার টাকা) দেওয়া হয়। কিন্তু নির্মাণ কাজ না করে সেই টাকা অত্মসাত করেন এবং নিজেই এখন ভোগ দখল করছেন।
সংবাদ সম্মেলনে তারা বলেন, এই সম্পত্তির আবু তালেব, আবুল কালাম ও সাদের আলীর ছেলে আব্দুল কাদের ক্ষতিগ্রস্থ হয়। যা ১৪ বছরে ক্ষতিগ্রস্থ টাকার পরিমান প্রতি অংশিদারে ৩০ লক্ষ টাকা করে হয়েছে। এ নিয়ে একাধিকবার বিচার হয়। এই বিচারের ফলাফল তারা মেনে নিয়ে পরে অস্বীকার করেন। সর্বশেষে চলতি বছরের ১২ জুলাই কাজলা বাজার ব্যবসায়ী সমিতি ও মতিহার থানা অফিসার ইনচার্জ এর প্রতিনিধি হিসেবে এস.আই সুকান্ত, এ্যাডভোকেট সোহাগ, মডেল প্রসে ক্লাবের সভাপতি, সহ-সভাপতি ও যুগ্ম সম্পাদকসহ সমাজের গ্যনমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত থেকে আবারও বিচার হয়।
বিবাদী ২ মাসের সময় নেন দোকানের মালামাল সরিয়ে নেয়ার জন্য। দুইমাস পরে জায়গা বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অঙ্গিকার করেন তারা। কিন্তু সময়মত দোকানে উপস্থিত হলে তারা তাদের উপর চড়াও হয়। এতে তারা প্রতিবাদ করেন এবং আইনের আশ্রয় নেন। পরে প্রশাসন থেকে মার্কেটে ১৪৪ জারী করা হয়।
সংবাদ সম্মেলন হতে এই ভূমি দস্যুদের কবল থেকে জায়গা উদ্ধার করে বুঝিয়ে দেয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট অনুরোধ করেন ভুক্তভোগিরা।
বাংলার কথা/ সেপ্টেম্বর ২২, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn