নারকেল তেল আপনার ত্বকের পক্ষে কতটা উপকারী

বাংলার কথা ডেস্ক ০

বিজ্ঞাপনের ভাষায় বলতে গেলে সুন্দর ত্বকই সবচেয়ে সেরা মেকআপ। তাই ত্বক আর একটু উজ্জ্বল করে তুলতে আমাদের চেষ্টার কসুর নেই! যতরকম পোশাকি জিনিসপত্রই ব্যবহার করুন না কেন, ত্বকের যত্নের ব্যাপারে নারকেল তেল যতটা কাজের তার ধারেকাছে আর কিচ্ছু আসতে পারবে না, অবাক হচ্ছেন? আসলে নারকেল তেল আপনার চুলের জন্য যতটা, ত্বকের জন্যও ঠিক ততটাই ভালো। দেখে নিন ঠিক কীভাবে মুখেও ব্যবহার করতে পারেন নারকেল তেল।

যাদের তেলতেলে ত্বক, তারা সরাসরি মুখে তেল মাখবেন না বলাই বাহুল্য। বরং ফেসপ্যাকে উপাদান হিসেবে রাখুন নারকেল তেল। যাদের ত্বক শুষ্ক তারা সরাসরি ক্রিমের মতো মুখে নারকেল তেল লাগাতে পারেন। বাজারচলতি চুলের জন্য তৈরি নারকেল তেল না কিনে এক্সট্রা ভার্জিন নারকেল তেল কিনুন। এই তেল সাধারণ নারকেল তেলের চেয়ে হালকা, পরিশুদ্ধও বেশি। নিয়মিত নারকেল তেলের ব্যবহার ত্বকের ক্ষতিকর ব্যাকটিরিয়া নষ্ট করে ত্বকে সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। ত্বকে কোনওরকম জ্বালাপোড়া ভাব হলে তা কমাতেও নারকেল তেল যথেষ্ট কার্যকর। শুষ্ক ত্বকের পক্ষে তো নারকেল তেলের মতো ভালো ময়শ্চারাইজ়ার আর নেই।

কীভাবে ফেসপ্যাকে ব্যবহার করবেন নারকেল তেল? হদিশ রইল এখানে:

উজ্জ্বল ত্বকের জন্য নারকেল তেল ও মধুর প্যাক
এই ফেসমাস্কটি ক্লেনজ়ারের মতো কাজ করে। ত্বকে জমে যাওয়া ধুলোময়লা ও মৃত কোষ সরিয়ে এবং রোমছিদ্র পরিষ্কার করে ত্বক উজ্জ্বল রাখতে জুড়ি নেই এই প্যাকটির!

কী লাগবে
সিকি কাপ নারকেল তেল
১.টেবিলচামচ কাঁচা মধু
সিকি কাপ শিয়া বাটার

পদ্ধতি
১.পাত্রে একসঙ্গে নারকেল তেল আর শিয়া বাটার নিয়ে আঁচে বসিয়ে গলিয়ে নিন।
২. আঁচ থেকে নামিয়ে তাতে কাঁচা মধু যোগ করুন
৩.. ভালো করে মিশিয়ে সারা মুখে সমানভাবে লাগান।
৪.. অন্তত আধঘণ্টা রেখে ধুয়ে ফেলুন।

ব্ল্যাকহেডস কমাতে নারকেল তেল ও বেকিং সোডার প্যাক
এই ফেসমাস্কটি ক্লেনজ়ারের মতো কাজ করে। ত্বকে জমে যাওয়া ধুলোময়লা ও মৃত কোষ সরিয়ে ও রোমছিদ্র পরিষ্কার করে ত্বক উজ্জ্বল রাখতে জুড়ি নেই এই প্যাকটির!

কী লাগবে
১ টেবিলচামচ নারকেল তেল
১ চাচামচ বেকিং সোডা
পদ্ধতি
১. বেকিং সোডা আর তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্টের মতো করে নিন
২. ব্ল্যাকহেডসের উপর লাগিয়ে হালকা হাতে মিনিট দশেক মাসাজ করুন। তারপর মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’বার করলেই ব্ল্যাকহেডসের সমস্যা বিদায় নেবে।

ব্রণ কমাতে নারকেল তেল ও দারচিনি
নারকেল তেল আর দারচিনি, দুইয়েরই অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ রয়েছে যা ব্রণ কমাতে সহায়ক।

কী লাগবে
১চাচামচ নারকেল তেল
১ চাচামচ দারচিনি গুঁড়ো (বাজার থেকে স্টিক কিনে বাড়িতে গুঁড়িয়ে নিতে পারেন)

পদ্ধতি
১. দারচিনি গুঁড়ো আর নারকেল তেল একসঙ্গে মিশিয়ে পেস্টের মতো করে নিন।
২. ব্রণর উপর লাগিয়ে আধঘণ্টা রেখে দিন।
৩. আধঘণ্টা পর মুখ ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে তিনবার করতে হবে।

সতর্কতা: দারচিনি গুঁড়ো ব্যবহার করার আগে ত্বকে প্যাচ টেস্ট করে নেওয়া দরকার। দারচিনির কারণে ত্বকে জ্বালা করতে পারে। আপনার ত্বকের সহনক্ষমতা অনুসারে দারচিনির পরিমাণ কমাতে বা বাড়াতে পারেন।

তারুণ্যে ঝলমল ত্বকের জন্য নারকেল তেল আর অ্যাভোকাডো
নারকেল তেল আর অ্যাভোকাডো আপনার ত্বককে ফ্রি রাডিক্যালের হাত থেকে রক্ষা করে, ত্বকে বয়সের ছাপ পড়তে দেয় না।

কী লাগবে
১ টেবিলচামচ নারকেল তেল
সিকি টেবিলচামচ পাকা অ্যাভোকাডো
আধ চাচামচ জায়ফল গুঁড়ো

পদ্ধতি
১. পাত্রে অ্যাভোকাডো চটকে নিন।
২. তাতে জায়ফল গুঁড়ো আর নারকেল তেল মিশিয়ে পেস্টের মতো করুন।
৩. মুখে প্যাকের মতো করে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে দিন।
৪. ঠান্ডা জলে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’বার কি তিনবার করলেই ফল পাবেন।

সতর্কতা: জায়ফল ব্যবহারের আগে প্যাচ টেস্ট করে নিতে ভুলবেন না!

ত্বকে ফরসাভাব আনতে নারকেল তেল আর হলুদ
হলুদ ত্বকের দাগছোপ দূর করে উজ্জ্বলভাব আনতে সাহায্য করে, লেবুর অ্যাস্ট্রিনজেন্ট ত্বক তেলতেলে হতে দেয় না। মধু আর নারকেল তেল ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে।

কী লাগবে
৩ টেবিলচামচ নারকেল তেল
আধ চাচামচ হলুদ গুঁড়ো
আধ চাচামচ লেবুর রস
১ টেবিলচামচ মধু

পদ্ধতি
১. পাত্রে সমস্ত উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে নিন
২. পরিষ্কার মুখে ফেস মাস্কটি লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট রেখে ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’ থেকে তিনবার করতে হবে।

সূত্র:ফেমিনা।

বাংলার কথা/ অক্টোবর ০৪, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: