নাচোলে নিয়ম বর্হিভুতভাবে পুকুর লিজ প্রদানের অভিযোগ

নাচোল (চাঁপাইনবাবগঞ্জ) প্রতিনিধি o
চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে সরকারি নিয়ম বর্হিভুতভাবে পুকুর লিজ প্রদানের অভিযোগ উঠেছে ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসানের বিরুদ্ধে।

তৃতীয় দফায় পুকুর লিজের বিজ্ঞপ্তি তালিকায় লিজকৃত পুকুরের দাগ নম্বর না থাকার সত্ত্বেও লিজ প্রদান করা হয়েছে। নিয়ম বর্হিভুতভাবে লিজ প্রদানের বিষটি উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতার নিকট দরখাস্ত প্রদান করলেও তা আমলে না নিয়ে নিয়ম বর্হিভুতভাবে একটি সমিতিকে চেক প্রদান করা হয়েছে। ভুক্তভোগিরা লীজ বাতিলের জন্য চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট লিখিত আবেদন করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নাচোল উপজেলার পশ্চিম মির্জাপুর মৌজার ৪৪৩ নং দাগের পুকুরটি (যার আয়তন ১.৯৯ একর) ১৪২৪ হতে ১৪২৬ বাংলা সন তিন বছরের জন্য সরকারিভাবে লীজ গ্রহণ করে পুকুর পাড়ের আদিবাসিদের নিয়ে ভোগ দখল করে আসছে চাঁদপাড়া মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লিমিটেড।

চলতি বছরের মে মাসে বর্নিত পুকুরটি পুনরায় ১৪২৭ হতে ১৪২৯ বাংলা সন তিন বছরের জন্য ইজারা প্রদানের জন্য লিজের প্রথম তালিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটি। বর্নিত পুকুরটি লিজের প্রথম বিজ্ঞপ্তি তালিকায় দেওয়া হলে পুকুর পাড়ের আদিবাসীদের লিখিত আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা জলমহল ব্যবস্থপনা কমিটির সভাপতি ইউএনও তা পরবর্তীতে খাস আদায়ে দেওয়ার জন্য উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসানকে নির্দেশ দেন।

ইজারা প্রদানের দ্বিতীয় ও তৃতীয় দফার বিজ্ঞপ্তিতে পুকুরটি উল্লেখ না থাকলেও তা উপজেলা ভূমি অফিসের সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসান কুচক্রী মহলের যোগসাজসে বর্নিত পুকুরটিতে নিয়ম বর্হিভুতভাবে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নামে তৃতীয় দফায় সিডিউল বিক্রি করে।

গত ২১ সেপ্টেম্বর উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় বর্নিত পুকুরটি নিয়ম বর্হিভুতভাবে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নামে লিজ পাশ করা হলে বিষটি নজরে আসে নাচোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের ও ভুক্তভোগিদের। পরে নাচোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের পুকুর পাড়ের আদিবাসিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নিয়ম বর্হিভুতভাবে পাশ হওয়া সমিতির নামে চেক প্রদান না করার জন্য সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসানকে নির্দেশ প্রদান করেন।

অন্যদিকে, গত ২১ সেপ্টেম্বর উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় বর্নিত পুকুরটি নিয়ম বর্হিভুতভাবে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নামে লিজ প্রদান করা হলে তা বাতিলের জন্য উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ইউএনওর নিকট লিখিত আবেদন করেন পুকুরটির ভোগদখলে থাকা চাঁদপাড়া মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সভাপতি আতাউর রহমান।

অভিযোগের কোন সুরাহা না পেয়ে চাঁদপাড়া মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি লিমিটেড এর সভাপতি আতাউর রহমান গত ১১ অক্টোবর সকালে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট নিয়ম বর্হিভুতভাবে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নামে পুকুর লিজ বাতিলের জন্য আপিল করেন। কিন্তু এই দিনে তড়িঘড়ি করে আবার পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নামে ডিসিআর প্রদান করা হয়।

বর্তমানে পুকুরটি দখলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠেছে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর গ্রাম উন্নয়ন সমবায় সমিতির নেতারা। পুকুরটি দখলকে কেন্দ্র করে যে কোন মূহুর্তে ঘটতে পারে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি।

এ বিষয়ে নাচোল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের বলেন,‘পুকুরটি যেহেতু নিয়ম বর্হিভুতভাবে পাশ করা হয়েছে, সেহেতু সেটি সভার পরের দিন ভুক্তভোগিদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমি নিয়ম বর্হিভৃুতভাবে পাশ হওয়া সমিতির নামে চেক প্রদান না করার জন্য সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসানকে বলি।’ পুকুরটি লিজের কোন বিজ্ঞপ্তি তালিকায় ছিলো না বলে জানান তিনি।

এ বিষয়ে নাচোল উপজেলা জলমহল ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি ইউএনও সাবিহা সুলতানার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, তৃতীয় দফার টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি তালিকায় যদি পুকুরটি না থেকে থাকে, তাহলে আবশ্যই লিজ বাতিল করা হবে।

এ বিষয়ে উপজেলা সার্ভেয়ার মাহামুদুল হাসান এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ‘পুকুরটি টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি তালিকার প্রথম দিকে দেওয়া হলে তা অভিযোগের প্রেক্ষিতে খাস খতিয়ানে দেওয়ার সিদ্বান্ত গৃহীত হয়। কিন্তু সেটি আবার তৃতীয় দফার দিকে ইজারা প্রদানের জন্য সিদ্বান্ত হলে সেটি ভুলবশত বর্নিত পুকুরটি বিজ্ঞপ্তি তালিকায় দেওয়া হয়নি।’ তিনি এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে বলেন,‘লীজ দেওয়ার মালিক ইউএনও স্যার, আমি কি করব।’

এ বিষয়ে পশ্চিম মির্জাপুর স্বনির্ভর সমবায় সমিতির সভাপতি গোলাম কবিরের সাথে এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান,আমরা এখনও ডিসিআর পাইনি। তবে তিনি লিজের বিজ্ঞপ্তি তালিকা ছাড়া কিভাবে পুকুর লীজের সিডিউিল ড্রপ করেছেন এমন প্রশ্নের জবাবে তা তিনি এড়িয়ে যান।

এ বিষয়ে নাচোল চাঁদপাড়া মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির সভাপতি আতাউর রহমান জানান, ‘বর্নিত পুকুরটি আমরা এলাকাবাসীসহ সরকারিভাবে লিজ নিয়ে ভোগদখল করে আসছি। চলতি বছরে নতুনভাবে পুকুরটি ইজারা প্রদানের জন্য বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করলে তা নেওয়ার জন্য আমরা প্রথম দফায় আবেদন করি। কিন্তু সেটি পরবর্তীতে খাস খতিয়ানে প্রদানের সিদ্বান্ত হয়।

তিনি বলেন, সার্ভেয়ার মাহমুদল হাসান উৎকোচের মাধ্যমে তা সরকারি নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করে অন্য একটি সমিতির নামে সিডিউল গ্রহণ করে এবং তা পরবর্তীতে জলমহল কমিটির সভায় পাশ করান। নিয়ম বর্হিভুতভাবে পাশ হওয়া পুকুরটি বাতিলের জন্য নাচোল উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে আমি লিখিত অভিযোগ করি। কিন্তু সেটির সুরাহা না পাওয়ায় ১১ অক্টোবর চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রশাসকের নিকট পাশ হওয়া সমিতির লিজ বাতিলের জন্য আপিল করি। আমরা উক্ত পুকুরটি চাঁদপাড়া মৎস্যজীবী সমিতির নামে সরকারি ন্যায্যমূল্যে লীজ নিতে আগ্রাহী।’

বাংলার কথা/জোহরুল ইসলাম জোহির/অক্টোবর ১২, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: