নওগাঁয় তক্ষক কেনাবেচায় জড়িত অভিযোগে এসআইসহ গ্রেপ্তার ৫

সাজ্জাদুল তুহিন, নওগাঁ ০
মূল্যবান তক্ষক কেনাবেচার সঙ্গে জড়িত অভিযোগে পুলিশের একজন এসআই সহ সংঘবদ্ধ একটি চক্রের পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জব্দ করা হয়েছে একটি তক্ষক।

নওগাঁর বদলগাছি থানার পুলিশ শুক্রবার (২ অক্টোবর)) সন্ধ্যায় তাঁদের গ্রেফতার ও তক্ষকটি জব্দ করে। এ ঘটনায় বদলগাছী থানায় একটি প্রতারণার মামলা হয়েছে। রাতেই বদলগাছী থানার সহকারী উপপরিদর্শক বাবর আলী বাদি হয়ে মামলাটি দায়ের করেন।

বদলগাছী-মহাদেবপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সালেহ মো. আশরাফুল আলম এ খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, এসআই গোলাম মোস্তফা ঢাকার রিজার্ভ পুলিশে কর্মরত আছেন। আগে তিনি বদলগাছী এলাকায় কর্মরত ছিলেন।

গ্রেফতার পাঁচজন হলেন ঢাকা রিজার্ভ পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) গোলাম মোস্তফা (৫০), তার ছেলে রনি (২৫), সোহাগ হোসেন (২২), পারভেজ (২৫) ও বদলগাছী সদরের ওবায়দুল কবিরাজের স্ত্রী পিয়ারা বেগম (৫০)।

বদলগাছী থানা-পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, এসআই গোলাম মোস্তফা ৭-৮ বছর আগে বদলগাছী থানায় কর্মরত ছিলেন। এ কারণে এলাকার অপরাধ জগতের লোকজনের সঙ্গে তার পরিচিতি আছে। তার ছেলে ও ছেলের দুই বন্ধুকে সঙ্গে নিয়ে শুক্রবার সকালে তিনি বদলগাছী উপজেলা সদরে যান। তারা উপজেলা সদরের বিভিন্ন স্থানে ডিবি পুলিশ পরিচয়ে ঘোরাফেরা করেন। পরে এসআই গোলাম মোস্তফা তার ছেলে ও ছেলের বন্ধুদের নিয়ে বদলগাছী থানায় যান।

তারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চৌধুরী যোবায়ের আহাম্মেদের কাছে গিয়ে ডিবি পুলিশের পরিচয় দিয়ে অভিযান পরিচালনার জন্য তার সহায়তা চান। তাদের কথাবার্তায় ওসির সন্দেহ হয়। ওসি তাদের থানায় বসিয়ে রেখে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের বিষয়টি জানান।

পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদের একপর্যায়ে তারা তক্ষক কেনাবেচা চক্রের সঙ্গে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন। তাদের কাছে ডিবি পুলিশের একটি পোশাক ও একটি হাতকড়া পাওয়া যায়। তাদের তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার সন্ধ্যায় উপজেলা সদরের খাদ্যগুদামের পেছনে ওবায়দুল কবিরাজের ভাড়া বাসায় অভিযান চালিয়ে একটি তক্ষক জব্দ করা হয়। পুলিশের অভিযানের সময় ওবায়দুল কবিরাজ পালিয়ে যান। সেখান থেকে তার স্ত্রী পেয়ারা বেগমকে গ্রেফতার করা হয়।

বদলগাছী থানার ওসি চৌধুরী যোবায়ের আহাম্মদ বলেন, শনিবার এসআইসহ গ্রেফতার পাঁচজনকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

বাংলার কথা/অক্টোবর ০৩, ২০২০

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Follow by Email
%d bloggers like this: