1. banglarkotha.news@gmail.com : banglarkotha : banglarkotha
  2. arh091083@gmail.com : Md Hafijur Rahman Panna : Md Hafijur Rahman Panna
দুর্গত এলাকায় ১৫ টন গো খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানিসহ শুকনো খাবার পাঠিয়েছে গণস্বাস্থ্য - বাংলার কথা
বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ০৯:৩১ পূর্বাহ্ন
দৃষ্টি আকর্ষণ:
বাংলার কথা সবসময় দেশ ও জাতির কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছে। আপনার আশেপাশে ঘটে যাওয়া ঘটনা আমাদের মেইলে পাঠান newsbk2020@gmail.com

দুর্গত এলাকায় ১৫ টন গো খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানিসহ শুকনো খাবার পাঠিয়েছে গণস্বাস্থ্য

  • প্রকাশ সময়: বৃহস্পতিবার, ২৩ জুন, ২০২২

বাংলার কথা ডেস্ক :
গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র সিলেট এবং সুনামগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় অসহায়দের মাঝে ১শ’ টন শুকনো খাদ্য বিতরণ কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছে। গত ১৭ জুন থেকে ইতিমধ্যে ২১ টন চিড়া ও ৫ টন গুড় বিতরণ করা হয়েছে। ২ লিটারের পাঁচ হাজার বোতল পানি ও পর্যাপ্ত পরিমাণের পানি বিশুদ্ধকরণ টেবলেট বিতরণ করা হয়েছে। সুনামগঞ্জ জেলার দক্ষিণ সুরমা সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় বিভিন্ন এলাকায় ১৫ টন গো খাদ্য বিতরণের জন্য ঢাকা থেকে গো খাদ্য পাঠানো হয়েছে। শুক্রবার থেকে সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় গো খাদ্য বিতরণ করা হবে।

আজ বিকেলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রেস উপদেষ্টা জাহাঙ্গীর আলম মিন্টু গণমাধ্যমে পাঠানো বিবৃতিতে এসব তথ্য জানান।

বিবৃতিতে মিন্টু জানান, প্রতিটি পরিবারকে ২ কেজি চিড়া, আড়াইশ গ্রাম গুড়, ২ লিটারের একটা করে পানির বোতল, পানি বিশুদ্ধকরণের টেবলেট, খাবার জি সেলাইন, প্যারাসিটামল, শিশুদের জন্য জি প্যারাসিটামল সিরাপসহ বিভিন্ন ঔষধ পত্র বিতরণ করে যাচ্ছেন। দক্ষিণ সুনামগঞ্জে এবং শান্তিগঞ্জ উপজেলায় পাগলা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রসহ দুইটি চিকিৎসা টিম আরেকটি গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র, নওধার, বিশ্বনাথ, সিলেট জেলায় চিকিৎসা অব্যাহত রয়েছে। গত পাচঁদিনে প্রায় পাচঁ হাজার পরিবারের মাঝে খাদ্য বিতরণ করা হয়। ২ হাজার বন্যার্ত মানুষকে চিকিৎসা দেন। বিশ্বনাথ নওধার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র, শান্তিগঞ্জ পাগলা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে প্রায় আড়াই হাজার মানুষ আশ্রয় নেয়। গত পাঁচদিনে সিলেটের বিশ্বনাথে নওধার গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং এর পার্শ্ববর্তী এলাকার আমতৈল, রহমান নগর, আমতৈল বাজারে ১ হাজার পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। বৈরাগী গাঁও, ঘোরাইল ও কাঠলিপাড়া গ্রামে মোট ৯শ’ টি পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। দক্ষিণ সুনামগঞ্জের পাগলা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং আশপাশের বন্যা কবলিত এলাকায় গতকাল ৯ শ’ ৫০ টি পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়েছে এবং ৬শ’ জন রোগীকে বিভিন্ন রোগের চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্র হাসপাতাল, পাগলা বাজার এবং পার্শ্ববর্তী এলাকার বারীগাঁও জামে মসজিদ, বারীগাঁও স্কুল, পশ্চিম পাগলা (ব্রাহ্মণ গাঁও) এবং আসামপুর এলাকায় এই মেডিকেল ক্যাম্প ও ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। আজ দুপুরে শান্তিগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ ত্রাণ বিতরণের সময় এসে কার্যক্রমের খোঁজ খবর নেন। তিনি নৌকা জোগাড় করে দেয়াসহ স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী দিয়ে ত্রাণ কাজের সহায়তার আশ্বাস দেন। স্থানীয় প্রশাসনের সমন্বয় ও সহযোগিতার মাধ্যমে গণস্বাস্থ্যের ত্রাণ বিতরণের কার্যক্রম এগিয়ে চলছে।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলার জয়কলস, দরগাপাড়া, পূর্ব বিশগাঁও, পশ্চিম পাগলা ও পূর্ব পাগলাসহ পাঁচটি ইউনিয়নে ১২ শ’ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়। এসময় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মকর্তা শাহনাজ সুলতানাসহ পাগলা গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলার কথা/২৩ জুন/২০২২

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরো নিউজ দেখুন
© All rights reserved © 2022 Banglarkotha
Design Develop BY Flamedevteam