জয়পুরহাটে যৌতুক মামলায় কাস্টমস কর্মকর্তা কারাগারে

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

বাংলার ডেস্ক :
জয়পুরহাটের কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামের এক স্কুল শিক্ষিকার দায়ের করা যৌতুক মামলায় স্বামী সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জুবায়ের রহমানকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। মঙ্গলবার বিকালে জয়পুরহাট চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্র আদালতের বিচারক মো. জাহাঙ্গীর আলম এ আদেশ দেন।

 

মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণীতে জানা গেছে, ২০১৪ সালে কালাই উপজেলার বিনইল গ্রামের আজগর আলীর মেয়ে স্কুল শিক্ষিকা খাইরুন নেছার সাথে ১৫ লাখ টাকা দেনমোহরে সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার রান্ডিলা গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা জুবায়ের রহমানের বিয়ে হয়। বিয়ের সময় খাইরুন শিক্ষিকা হিসেবে চাকরিরত থাকলেও জুবায়ের ছিলেন বেকার। পরবর্তীকালে জুবায়ের একটি ব্যাংকে কিছু দিন চাকরি শেষে সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ লাভ করেন।

 

এরমধ্যে জুবায়ের প্রথম বিয়ে গোপন করে এক নারী চিকিৎসককে বিয়ে করেন। বিষয়টি গোপন রেখে জুবায়ের কিছু দিন ধরে খাইরুনের কর্মস্থল বাবার বাড়ি বিনইল গ্রামে আসা যাওয়ার করতে থাকেন। এরই এক পর্যায়ে খাইরুনের পরিবারের কাছে জুবায়ের ১০ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করেন। বিষয়টি নিয়ে গত বছর ১৩ সেপ্টেম্বর জয়পুরহাট চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে খাইরুন যৌতুকের মামলা করেন।
আজ মঙ্গলবার জামিন লাভের জন্য আদালতে হাজির হলে বিচারক জুবায়েরের জামিন না-মঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

 

আসামিপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মাকসুদ ও বাদীপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মানিক হোসেন।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্র নাথ মন্ডল ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

বাংলার কথা/১৪ সেপ্টেম্বর/২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn