আজ- শনিবার, ৬ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২১শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

চারঘাটে বৃদ্ধকে গলাকেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিজস্ব প্রতিবেদক, চারঘাট (রাজশাহী) ০
রাজশাহীর চারঘাটে মানসুর রহমান (৭০) নামের এক বৃদ্ধকে গলাকেটে হত্যার রহস্য উদঘাটন হয়েছে। নিজঘরে চুরি করতে দেখে ফেলায় তিনি হত্যাকাণ্ডের শিকার হন বলে দাবি করেছে পুলিশ।

শুক্রবার (১৮ ডিসেম্বর) রাতে রাজশাহী জেলা পুলিশের মুখপাত্র অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, এ ঘটনায় গ্রেফতার দুই যুবক খুনের কথা স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

গত ১৩ ডিসেম্বর রাতে বৃদ্ধ মানুসরকে গলাকেটে হত্যা করা হয়। তিনি উপজেলার শলুয়া ইউনিয়নের দৌলতপুর গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইফতেখায়ের আলম জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল চুরির উদ্দেশ্যে কেউ তাকে হত্যা করেছে। সে অনুযায়ী পুলিশ তদন্ত শুরু করে। বুধবার সন্দেহভাজন দুজনকে গ্রেফতারের পর হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদঘাটন হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন প্রতিবেশী রোমান হোসেন সেতু (২১) ও আকাওয়াদ হোসেন শাওন (২৭)। বৃহস্পতিবার তারা আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। ইফতেখায়ের আলম জানান, অর্থের লোভে তারা বৃদ্ধ মানসুরকে হত্যা করে। দুজনই বখাটে ও বিভিন্ন অপকর্মের সঙ্গে জড়িত।

তিনি আরও জানান, বাড়িতে একাই থাকতেন মানসুর। এ সুযোগে ঘটনার দিন তার বাসায় চুরির পরিকল্পনা করে ওই দুজন। রাতে সেতু সীমানা প্রাচীর টপকিয়ে বাসার ভেতরে প্রবেশ করে। আর শাওন বাসার বাইরে অবস্থান করে। এক পর্যায়ে মানসুর তার রুমের দরজা খুলে বাথরুমের দিকে গেলে সেতু ঘরে ঢুকে মূল্যবান সামগ্রী খুঁজতে থাকে। বিষয়টি টের পেয়ে চিৎকার দেন মানসুর। এ সময় সেতু তাকে জাপটে ধরে। ধস্তাধস্তির এক পর্যায়ে তার হাতে থাকা ‘এন্টি কাটার’ দিয়ে বৃদ্ধ মানসুরের গলাকেটে পালিয়ে যায়।

বাংলার কথা/ডিসেম্বর ১৮, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn