আজ- রবিবার, ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৬ই রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

করোনা পরিস্থিতিতে প্রচারবিমূখ এক মানুষের কথা

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

মাসুদ রানা রাশেদ, লালমনিরহাট o

বর্তমান করোনা পরিস্থিতিতে নীরবে নিভৃতে দুঃস্থ জনগণের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন প্রফেসর ডা. মো. মোজাফফর-উল-ইসলাম মন্ডল (ডা. এম আই মন্ডল)। প্রচারবিমূখ এই মানুষটি ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন সময়ে অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়ান। তার গ্রামের বাড়ি লালমনিরহাট জেলার লালমনিরহাট সদর উপজেলার খুনিয়াগাছ ইউনিয়নের কালমাটি গ্রামে। তার পিতার নাম মরহুম কোবাদ আলী মন্ডল।

ডাঃ এম আই মন্ডল পেশায় একজন চিকিৎসক। তিনি ইতিপূর্বে রংপুর মেডিকেল কলেজ, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। তিনি দীর্ঘদিন মাওলানা ভাসানী মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন । মাওলানা ভাসানী মেডিকেল কলেজের গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা সমূহ তার সময়েই নির্মিত হয়।

ডাঃ এম আই মন্ডল শিক্ষাজীবন শুরু করেন তার নিজ গ্রাম কালমাটিতে। পরবর্তীতে­ তিনি লালমনিরহাট হাই স্কুলে পড়াশোনা করেন এবং রাজশাহী মেডিকেল কলেজ থেকে পাস করে চিকিৎসক হিসেবে স্বীকৃতি লাভ করেন। পরবর্তীতে তিনি আই পিজি এম আর (বর্তমানে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়) থেকে পোস্ট গ্রাজুয়েট সম্পন্ন করেন।

১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় তিনি নিজ গ্রাম কালমাটিতে অবস্থানকালীন সাধারণ জনগণ ছাড়াও বহু আহত বীর মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসা প্রদান করেন। উল্লেখ্য, তার বড় বোনের স্বামী ডা. আব্দুল ওয়াহেদও লালমনিরহাট জেলা শহরের একজন নামকরা চিকিৎসক ছিলেন। মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন লালমনিরহাট এবং তার আশেপাশের এলাকার সকল যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন ডা. আব্দুল ওয়াহেদ এবং তার শ্যালক ডা. এম আই মন্ডল। তারা যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের শুধু ঔষধপত্র দিয়েই নয় কিছু কিছু ক্ষেত্রে তারা যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মাইনর অপারেশন পরিচালনা করেন, এমনকি শরীরে বিদ্ধ গুলিও অপসারণ করেন। ডা. এম আই মন্ডল তার বাড়ির নিকটবর্তী তার বাবার প্রতিষ্ঠিত ২নং চোংগাদ্বাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় অস্থায়ী হাসপাতালে রুপান্তরিত করেন এবং নিজ উদ্যোগে যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধাদের চিকিৎসা ও খাওয়া-থাকার ব্যবস্থা করেন।

ডাঃ এম আই মন্ডল রংপুর মেডিকেল কলেজে কর্মরত থাকা অবস্থায় অনেকদিন হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত ডাইরেক্টর-এর দায়িত্ব পালন করেন। সেই সময়ে তিনি রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের প্রভূত উন্নতি সাধন করেন। সেই সময়ে লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম এবং আশে-পাশের এলাকার জনগণের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত কোন সমস্যা হলেই তারা প্রফেসর ডা. এম আই মন্ডলের সাথে যোগাযোগের মাধ্যমে সমস্যা সমাধান করতেন।

পরোপকারী ও প্রচারবিমূখ এই মানুষটি বর্তমানে ঢাকায় ট্রমা সেন্টারে রেডিওলজি বিভাগে কর্মরত। প্রতি বছর শীতে তিনি নিজ গ্রাম কালমাটি এবং আশে-পাশের গ্রামগুলোতে শীত বস্ত্র বিতরণ করে থাকেন এবং বন্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দূর্যোগে অসহায় মানুষের পাশে এসে দাঁড়ান। বর্তমান করোনা ভাইরাস উদ্ভূত পরিস্থিতিতে প্রফেসর ডা. এম আই  মন্ডল নিজ উদ্যোগে নিজ এলাকায় গরীব মানুষকে সাহায্য প্রদান করেন।

বাংলার কথা/ সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn