বৃহস্পতিবার , ১২ জানুয়ারি ২০২৩ | ২৬শে মাঘ, ১৪২৯
  1. অর্থনীতি
  2. আন্তর্জাতিক
  3. খুলনা বিভাগ
  4. খেলাধুলা
  5. চট্টগ্রাম বিভাগ
  6. জাতীয়
  7. ঢাকা বিভাগ
  8. প্রচ্ছদ
  9. ফিচার
  10. বরিশাল বিভাগ
  11. বিনোদন
  12. মতামত
  13. ময়মনসিংহ বিভাগ
  14. রংপুর বিভাগ
  15. রাজনীতি

এমপি আয়েনের বিরুদ্ধে কৃষকের জমি দখল ও নেতাকর্মীদের নির্যাতনের অভিযোগ

প্রতিবেদক
BanglarKotha-বাংলারকথা
জানুয়ারি ১২, ২০২৩ ৫:৩১ অপরাহ্ণ

নিজস্ব প্রতিনিধি :
রাজশাহী-৩ আসনের সংসদ সদস্য আয়েন উদ্দিনের দলীয় ট্রাইব্যুনাল গঠন, তাকে আবার নির্বাচনে টিকিট দিলে জামানত ধরে রাখতে পারবে না। তিনি জামায়াত-শিবির, রাজাকারের সন্তানদের চাকরি দিয়েছেন, লোক দিয়ে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মারধর, নির্যাতন ও মামলার অভিযোগ আমরা কেন্দ্রে দিয়েছি। বৃহস্পতিবার (১২ জানুয়ারি) দুপুর একটায় রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলন থেকে রাজশাহী-৩ (পবা-মোহনপুর) এমপি আয়েন উদ্দিনের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ তোলা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে মোহনপুর উপজেলা কৃষকলীগের মহিলা সম্পাদক শেখ হাবিবা, উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রমবিষয়ক সম্পাদক ও জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য শ্রী সুরঞ্জিত সরকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুলতান আলী, ঘাসিগ্রাম ইউপি আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবজাল হোসেন বকুল, উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আজাহার আলী, উপজেলা শ্রমিক লীগরে সভাপতি মজিবর রহমান, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম মিলন উপস্থিত ছিলেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন, ঘাসিগ্রাম ইউপি আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবজাল হোসেন বকুল ও মোহনপুর উপজেলা কৃষকলীগের মহিলা সম্পাদক শেখ হাবিবা।

সংবাদ সম্মেলন থেকে জানানো হয়- গত ২৩ নভেম্বর মোহনপুর উপজেলার ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের সাবেক মহিলা ইউপি সদস্য হাবিবা হামলার শিকার হন এমপি আয়েন উদ্দিনের বিরুদ্ধে গণমাধ্যমে বক্তব্য দেওয়ার কারণে। এছাড়া জেলা আওয়ামীলীগ সদস্য শ্রী সুরঞ্জিত সরকারকে মারধর করে এমপি আয়েন উদ্দিনের নির্দেশে ২০১৫ সালে। এমপি আয়েন উদ্দিন তুলসীক্ষেত্র নামক স্থানে শত শত কৃষকের ফসলী জমি রাতারাতি জবর দখল করে নিয়ে পুকুর খনন করেছে। আনন্দ উল্লাসের জন্য বাগানবাড়ি তৈরি করেছেন। মোহনপুর উপজেলার ঘাসিগ্রাম ইউনিয়নের শুটকি বিল ও রায়ঘাটি ইউনয়নের হিনাবিল এমপি আয়েন উদ্দিন ও তার বড় ভাই বাবলু দখল করে মাছ চাষ করছেন।

এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে নিয়োগ বাণিজ্যের মাধ্যমে জামায়াত-বিএনপি পন্থীদের নিয়োগ দিয়ে দলের নেতাকর্মীদের বঞ্চিত করেছে। এমপি আয়েন উদ্দিন নির্বাচিত হওয়ার পরে আওয়ামী লীগের ত্যাগী, যোগ্য ও নেতাকর্মীদের সাংগঠনিক পদ হতে বঞ্চিত হচ্ছে। এমপি মনোনয়ন বাণিজ্যের মাধ্যমে হাইব্রিডদের বিভিন্ন পদে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। এমপি আয়েন উদ্দিন পরিবার ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার বিরোধিতা করে। যা ৭১’এর মোহনপুর বইয়ের মাধ্যমে ও বিভিন্ন মুক্তিযোদ্ধা ও প্রবীণ ব্যক্তিদের মাধ্যমে জানতে পারা যায় এমপি আয়েন উদ্দিনের পিতা ও তার দুলাভাই উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম এর পিতা একাত্তরের স্বাধীনতা বিরোধী রাজাকার পিস কমিটির সদস্য ছিল, যাহা সম্প্রতি বিভিন্ন পত্র-পত্রিকাতেও প্রকাশিত হয়েছে।

এমপি আয়েন উদ্দিনের সাবেক পিএস বিজয় সম্মুখযোদ্ধা রাজাকারের সন্তান এবং বর্তমান এপিএস মিজানুর রহমান ২০০৮ সালের পূর্বে ছিলেন, বিএনপির ক্যাডার। এমপি আয়েন উদ্দিনের বড়ভাই আজহারুল ইসলাম বাবলু দুইবারের নৌকার ইউনিয়ন চেয়ারম্যান ২০০৮ এর পূর্বে কোন দিনও করেনি আওয়ামীলীগ। তার পিতা ছিল রাজাকার পিস কমিটির সদস্য।

সর্বশেষ - প্রচ্ছদ

আপনার জন্য নির্বাচিত

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে প্রথমবার চলচ্চিত্র উৎসব আয়োজন, বাচসাসকে তথ্যমন্ত্রীর ধন্যবাদ

শ্রীমঙ্গলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৮.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস

জেলা পরিষদসহ সব নির্বাচনই ‘ভুয়া’ : রিজভী

নয়াপল্টনে পুলিশ-বিএনপি সংঘর্ষ আহত ১৮

বাংলাদেশ জাতিসংঘ মানবাধিকার কাউন্সিলের সদস্য হওয়ায় বিএনপির অপপ্রচার মিথ্যা প্রমাণিত :তথ্যমন্ত্রী 

বাগমারায় অধ্যক্ষ সাইদুল হাসান আনসারী’র মৃত্যুতে এমপি এনামুল হকের শোক 

কোম্পানীগঞ্জে খাল পাড় থেকে অজ্ঞাত বিবস্ত্র যুবকের মরদেহ উদ্ধার

সারা বিশ্বে করোনায় আরও ১৪০০ মৃত্যু

পরাশক্তিরা যখন যুদ্ধরত, বাংলাদেশ তখন লাখো শরণার্থী আশ্রয় দিচ্ছে : ড. মশিউর

জ্যাকলিনের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করলেন নোরা ফাতেহি