ঈদের খুশিতে বিষাদের ছায়া, আজও করোনা, মৃত্যু ১৭৩

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিউজ ডেস্ক :

ঈদের দিনে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে আরও ১৭৩ জনের মৃত্যুর খবর এসেছে। ছুটির মধ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা এক ধাক্কায় ১৪ হাজার কমে যাওয়ায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যাও নেমে এসেছে সাত হাজারের ঘরে।

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, বুধবার সকাল পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে প্রায় ২৫ হাজার নমুনা পরীক্ষা করে আরও ৭ হাজার ৬১৪ জনের মধ্যে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। তাতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১১ লাখ ৩৬ হাজার ৫০৩ জন। এর আগের দিন ১১ হাজার ৫৭৯ জন করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছিল।

 

এর আগে মঙ্গলবার করোনায় ২০০ জন, সোমবার সর্বোচ্চ ২৩১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। আর রোববার ২২৫ ও শনিবার ২০৪ জন মারা গিয়েছিল।

 

গত ২৪ ঘণ্টায় ১৭৩ জনের মৃত্যুর মধ্যে পুরুষ ৯৮ ও নারী ৭৫ জন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ১৪৬ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ২২ জন এবং বাড়িতে ৫ জন মারা যান।

 

বিভাগওয়ারি হিসেবে দেখা গেছে, নতুন মৃতদের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ৫৮ জন, চট্টগ্রাম ৩২ জন, রাজশাহী ১১ জন, খুলনা ৩৮ জন, বরিশাল ৮ জন, সিলেট বিভাগে ৬ জন, রংপুর বিভাগে ১৬ জন এবং ময়মনসিংহ বিভাগে ৪ জন রয়েছেন।

 

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় সরকারি-বেসরকারি ৬৩৯টি ল্যাবরেটরিতে ২৫ হাজার ৬২৫টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে ২৪ হাজার ৯৭৯টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এনিয়ে মোট নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা দাঁড়াল ৭৩ লাখ ৬৪ হাজার ৮৮৮টি।

গত ২৪ ঘণ্টায় নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ৪৮ শতাংশ। এর আগে শনাক্ত ছিল ২৯ দশমিক ৩১ শতাংশ। অর্থাৎ, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্ত রোগীর সংখ্যা কমলেও সংক্রমণের মাত্রা আসলে কমেনি।

গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম রোগী শনাক্ত হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত শনাক্তের মোট হার ১৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৯ হাজার ৭০৪ জন করোনা রোগী। এনিয়ে দেশে করোনা আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা হলো ৯ লাখ ৬১ হাজার ৪৪ জন। সুস্থতার হার ৮৪ দশমিক ৫৬ শতাংশ।

বাংলাদেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ভাইরাসটিতে একজনের মৃত্যুর তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদফতর।

বাংলার কথা/২১জুলাই/২০২১

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn