আজ- মঙ্গলবার, ৯ই মার্চ, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, ২৪শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে রজব, ১৪৪২ হিজরি
বাংলার কথা
Header Banner

আড়ানীতে আ’লীগের দলীয় ও বিদ্রোহী প্রার্থীর গণসংযোগ

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn
Share on whatsapp
WhatsApp

নিজস্ব প্রতিবেদক (বাঘা) o
রাজশাহীর বাঘা উপজেলার আড়ানী পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রার্থী যাচাই-বাছাই এর পর সরব হয়ে উঠেছে প্রচার-প্রচারণা। আজ বৃহস্পতিবার (২৪ ডিসেম্বর) বিকালে আওয়ামী লীগ সমর্থিত দুই প্রার্থী পৃথক-পৃথক মত বিনিময় সভা করেছেন।

এর মধ্যে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী শহীদুজ্জামান শহীদ মতবিনিময় করেছেন গোচর এলাকায়। অপর দিকে বিদ্রোহী প্রার্থী বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী গণসংযোগ করেছেন রুস্তমপুর বাজার এলাকায়।

বিকেল ৪ টায় আয়োজিত মতবিনিময় সভায় শহীদুজ্জামান শহীদ ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম এমপির সহযোগিতায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আমাকে নৌকার প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছেন। তাই আমি নৌকার মাঝি হয়েছি।এই নির্বাচনে আপনাদের মুল্যবান ভোট দিয়ে আগামী ১৬ জানুয়ারি আমাকে বিজয়ী করলে আমি আড়ানী পৌর সভাকে মডেল পৌরসভা হিসেবে উপহার দিব।’

এ সময় তার সাথে উপস্থিত ছিলেন আড়ানী পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন,সহ-সভাপতি সাইদুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মুজিবুুর রহমান, আড়ানী ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম, অধ্যক্ষ সামরুল হোসেন, আড়ানী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আজিবর রহামান, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুল ইসলাম লাল্টু, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি কামরুজ্জামান নিপন, আড়ানী পৌর যুবলীগের সভাপতি কামরুল হাসান জুয়েল, সাংগঠনিক সম্পাদক পারভেজ আহম্মেদ, ২ নম্বর ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি আবদুল করিম প্রমূখ।

অপর দিকে রুস্তমপুর বাজার এলাকায় শত-শত নেতা-কর্মী নিয়ে বাজারের ব্যবসায়ীসহ স্থানীয় লোকজনের সাথে মতবিনিময় করেন বর্তমান মেয়র মুক্তার আলী।

তিনি ভোটারদের উদ্দেশ্যে বলেন,‘ আমি আপনাদের এলাকায় ঈদগাহ করে দিয়েছি। গরু হাটের উন্নয়ন করেছি। অসংখ্য রাস্তা করেছি। আমার উন্নয়ন দৃশ্যমান।’

তিনি বলেন, ‘আমি চলমান মেয়র। যদি এমন হতো, আমি কোন উন্নয়ন করিনি ! তাহলে দল আমাকে মনোনয়ন না দিলেও আমার কোন দুঃখ থাকতো না। কিন্তু এখানে সেটা হয়নি, তৃণমূলের মতামত উপেক্ষা করে পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতিকে দলীয় মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। আমি আমার অসমাপ্ত উন্নয়ন কাজ গুলো বাস্তবায়নের লক্ষে আরেকবার ভোট করতে চাই। এ জন্য আপনাদের দোয়া নিতে এসেছি।’

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাবুল বলেন,‘ একটি বড় রাজনৈতিক দলের মধ্যে মতবিরোধ থাকতে পারে। এটা সময়ের ব্যাপার। সামনে প্রার্থীতা প্রত্যাহারের সময় আছে। আমরা সে পর্যন্ত অপেক্ষায় আছি।’

বাংলার কথা/নুরুজ্জামান/ডিসেম্বর ২৪, ২০২০

এই রকম আরও খবর

Share on facebook
Facebook
Share on twitter
Twitter
Share on linkedin
LinkedIn